মঙ্গলবার, নভেম্বর ১২

খড় পোড়ানো বন্ধ করতে পারছেন না কেন? পাঞ্জাব সরকারকে তিরস্কার সুপ্রিম কোর্টের

দ্য ওয়াল ব্যুরো : পাঞ্জাব ও হরিয়ানায় খড় পোড়াচ্ছেন কৃষকরা। তার ফলে ধোঁয়াশায় ঢেকেছে রাজধানী দিল্লি ও তার আশপাশের আকাশ। খড় পোড়ানো বন্ধ করতে না পারার জন্য বুধবার সুপ্রিম কোর্টের তিরস্কারের মুখে পড়লেন পাঞ্জাবের মুখ্যসচিব। শীর্ষ আদালত বলেছে, কীভাবে খড় পোড়ানো বন্ধ করা যাবে তার কোনও রোডম্যাপ তৈরি করতে পারেনি পাঞ্জাব প্রশাসন। সব কিছু অফিসারদের ওপরে ছেড়ে দিয়েছে।

বিচারপতি অরুণ মিশ্র ও বিচারপতি দীপক গুপ্তকে নিয়ে গঠিত বেঞ্চ মুখ্যসচিবকে বলেছে, “আপনি পাঞ্জাবের মুখ্যসচিব হয়ে বসে আছেন কেন? এটা আপনারই ব্যর্থতা।” একইসঙ্গে বিচারপতিরা মন্তব্য করেন, “মানুষ মারা যাচ্ছে। বাতাসে দূষণের মাত্রা ১৮০০। বিমান অন্যপথে ঘুরিয়ে দিতে হচ্ছে। আর আপনারা নিজেদের কৃতিত্বে গর্বিত।”

বিচারপতিরা বলেন, সরকার তার নিজের দায়িত্ব কৃষকদের ওপরে চাপিয়ে দিতে চাইছে। তাঁদের কথায়, “আপনারা চান কৃষকদের শাস্তি হোক। সেই লক্ষ্যেই কাজ করছে পাঞ্জাব ও হরিয়ানা সরকার। গরিব মানুষের কথা কেউ ভাবে না।”

এদিন অ্যাটর্নি জেনারেলকেও সুপ্রিম কোর্টের তিরস্কারের মুখে পড়তে হয়। অ্যাটর্নি জেনারেল কে কে বেণুগোপাল আদালতে বলেন, উত্তর ভারতে এখন যে ধোঁয়াশা চেয়ে আছে, তার ৪৪ শতাংশের জন্য দায়ী কৃষকদের খড় পোড়ানো। ২ লক্ষ কৃষক যদি খড় পোড়ান, তাঁদের আটকানো সম্ভব নয়। সুপ্রিম কোর্ট বলে, খড় পোড়ানোই যদি দূষণের প্রধান কারণ হয়, তবে তা বন্ধ করতেই হবে। না হলে আমাদের দেশ পিছিয়ে যাবে ১০০ বছর।

Comments are closed.