সোমবার, এপ্রিল ২২

খোঁজ মিলল,১১৩ বছর আগে ডুবে যাওয়া ২০০ টন সোনা বোঝাই রাশিয়ান জাহাজের

 

 দ্য ওয়াল ব্যুরোঃ   একটি আন্তর্জাতিক অনুসন্ধানকারী দল আবিস্কার করলো ১১৩ বছর আগে ডুবে যাওয়া সোনা বোঝাই রাশিয়ান যুদ্ধজাহাজ দিমিত্রি ডনস্কই-কে। জাহাজটি যখন ডুবে যায় তখন জাহাজের খোলে ছিলো ৫৫০০ বাক্স সোনার মুদ্রা ও সোনার ইঁট। যার বর্তমান বাজার মূল্য একশ তিরিশ বিলিয়ন মার্কিন ডলার (এক বিলিয়ন মার্কিন ডলার সমান ৬৮,৮৫৫,০০০,০০০ টাকা)।

গত ১৫ই জুলাই,দক্ষিণ কোরিয়ার একটি দ্বীপের অদূরে দক্ষিণ কোরিয়া, বৃটেন ও কানাডার অনুসন্ধানকারীরা জাহাজটিকে খুঁজে পেয়েছেন।রাশিয়া-জাপানের সুশিমার (tshushima) যুদ্ধে জাহাজটি জাপানি গোলার আঘাতে ডুবে গিয়েছিল। উদ্ধারকারী দলের মতে, জাহাজে ২০০টন সোনার মুদ্রা ও সোনার ইঁট ছিলো। যার বর্তমান বাজার মূল্য ১৩০ বিলিয়ন ডলার।উদ্ধারকারী দল মনে করছেন, জাহাজটি যুদ্ধে জাপানি বোমার আঘাতে ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিলো। রাশিয়ান জাহাজের ক্যাপ্টেন চাননি এই বিশাল ধনরাশি জাপানের হাতে পড়ুক। সেই জন্য সম্ভবত নিজেই জাহাজটি ডুবিয়ে দিয়েছিলেন।
বর্তমানে দক্ষিণ কোরিয়ার দ্বীপ, উল্লেংডো থেকে কয়েক মাইল দুরে ৫৮০০ টনের জাহাজটি সমুদ্রের ১৪০০ ফুট গভীরে অবস্থান করছে। অনুসন্ধানকারী দলটি, সমুদ্রের গভীরে আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে নেমে জাহাজের ধ্বংসাবশেষ দেখে এসেছেন এবং ছবি তুলে নিয়ে এসেছেন।তাঁরা বলেছেন বোমার আঘাতে জাহাজটি ভয়ংকর ভাবেই ক্ষতিগ্রস্থ হলেও জাহাজের ডেক ও খোলের অংশটা এখনও ভালো অবস্থায় আছে।

সমুদ্রের তলায় দিমিত্রি ডনস্কই

দিমিত্রি ডনস্কই জাহাজটি সেন্ট পিটার্সবার্গে তৈরি হয়ে ১৮৮৩ সালে জলে নামে। ১৯০৫ সালে রাশিয়ান পণ্যবাহী জাহাজগুলিকে জাপানিদের আক্রমণ থেকে সুরক্ষা দিতে গিয়ে নিজেই আক্রমণের শিকার হয়ে বসে দিমিত্রি ডনস্কই। জাহাজটির ৫৯১ জন নাবিকের মধ্যে ৬০ জন মারা যান।১২০ জন আহত হন।উল্লেংডো দ্বীপের কাছে জাহাজটি নোঙর করে। জাহাজের ক্যাপ্টেন সবাইকে নামিয়ে দেন দ্বীপে।পরদিন সকালে জাহাজটি ডুবে যায়,ক্যাপ্টেনকে নিয়েই।দুদিন পর জাপানি সৈন্যরা গিয়ে রাশিয়ান সৈন্যদের উদ্ধার করে এবং বন্দী হিসেবে জাপানে পাঠিয়ে দেয়।

দিমিত্রি ডনস্কইকে উদ্ধার করার কাজে যুক্ত সংস্থাটি আশা করছেন, আগামী অক্টোবর, নভেম্বরের মধ্যে জাহাজটিকে ওপরের ওঠাতে পারবেন। এবং জাহাজের মধ্যে থাকা সুবিশাল ধনরাশির অর্ধেক দেবেন রাশিয়াকে।
সদ্য বিশ্বকাপের খরচ সামলে ওঠা পুতিনের হাসিটা কি আরও চওড়া হতে যাচ্ছে?

আরও পড়ুনঃআত্মহত্যার কয়েক ঘণ্টা আগে উইল করান হিটলার, কী লেখা ছিল সেই উইলে ? 

Shares

Leave A Reply