সোমবার, এপ্রিল ২২

বিমান থেকেই উৎক্ষেপণ করা যাবে রকেট! যাত্রা শুরু বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্লেন ‘স্ট্র্যাটোলঞ্চ’-এর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অবশেষে উড়ল বিশ্বের সবচেয়ে বড় বিমান স্ট্র্যাটোলঞ্চ। শনিবার শনিবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার মোহাভে স্পেস অ্যান্ড এয়ারপোর্ট থেকে যাত্রা শুরু করে স্ট্র্যাটলঞ্চ। মাইক্রোসফটের কো-ফাউন্ডার পল অ্যালেন ছিলেন এই বিশালাকার বিমান নির্মাণের পুরোধা। কিন্তু ২০১৮ সালের অক্টোবরে মৃত্যু হয় তাঁর। তবে মৃত্যুর পরেই অ্যালেনের স্বপ্ন বিফলে যায়নি। বরং সফলভাবেই উড়তে পেরেছে স্ট্র্যাটোলঞ্চ।

দুটো বিমান পাশাপাশি জুড়ে দিলে দেখতে যেমন হবে, অনেকতা তেমনই দেখতে এই বিশাল স্ট্র্যাটোলঞ্চ। এতে রয়েছে মোট ২৮টি চাকা। আর ৬টি বোয়িং ৭৪৭ জেট ইঞ্জিন। আয়তনে নাকি একটা ফুটবল মাঠের থেকেই বড় এই প্লেন। এরমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে স্ট্র্যাটোলঞ্চের বেশ কিছু ছবি। আর তা থেকেই বোঝা গিয়েছে যে দু’টি ডানার মোট দৈর্ঘ্য একটি ফুটবল মাঠের থেকেও বেশি। সাধারণত, এ৩৮০ বিমানের দু’টি ডানার মোট দৈর্ঘ্য ৮০ মিটায় হয়। সেখানে স্ট্র্যাটোলঞ্চের দু’টি ডানার মোট দৈর্ঘ্য ১১৭ মিটার। বিমানটির সবচেয় বড় বিশেষত্ব হল, এটি একই সঙ্গে তিনটি রকেট বহন করতে পারে। শুধু তাই নয় ওইসব রকেট উৎক্ষেপণও করতে পারে।

শনিবার, ট্রায়াল রানের জন্য ওড়ানো হয় বিশ্বের সবচেয়ে বড় বিমান স্ট্র্যটোলঞ্চকে। সে সময় প্লেনের গতি ছিল ঘণ্টার ৩০৪ কিলোমিটার। পর্যবেক্ষকরা জানিয়েছেন, প্রায় আড়াই ঘণ্টা আকাশে ছিল এই বিমানটি। স্ট্রাটোলঞ্চ এর নির্মাতা সংস্থা স্কেলড কমপোসিট-এর সিইও জেন ফয়েড জানিয়েছেন, মাটি থেকে রকেট উৎক্ষেপণের একটি বিকল্প মাধ্যম হিসেবে এই স্ট্র্যাটোলঞ্চকে কাজে লাগানোর পরিকল্পনা রয়েছে। জেনের কথায়, “অ্যালেন অনেক স্বপ্ন নিয়ে এই বিমান বানিয়েছিলেন। ওঁর স্বপ্নের সঙ্গে আমাদের সংস্থারও এই বিমান নিয়ে অনেক স্বপ্ন জড়িয়ে রয়েছে। আমি খুবই এক্সাইটেড।”

Shares

Comments are closed.