বুধবার, মার্চ ২০

প্রতারিত হওয়ার পরে ১৭ দিন ধরে একই এটিএম-এ গেলেন তরুণী! আর তার পরেই…

দ্য ওয়াল ব্যুরো: একটাই এটিএম-এ ১৭ দিন ধরে পরপর গেলেন তরুণী। আর তার পরেই প্রতারক যুবক ধরা দিল জালে।

পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগকারিণী তরুণী, ৩৫ বছরের রেহানা শেখের অভিযোগ, মুম্বইয়ের বান্দ্রায় তাঁর অফিসের সামনের একটি এটিএমে, তাঁকে ঠকিয়ে, কার্ড-জালিয়াতি করে, অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলে নিয়েছে বছর ছত্রিশের এক যুবক। পুলিশ জানিয়েছে, ওই অভিযুক্ত যুবকের নাম ভূপেন্দ্র মিশ্র। দু’সপ্তাহ ধরে পরিকল্পনা করে সে এমনটা করেছে রেহানার সঙ্গে। এবং এটাই প্রথম বার নয়, এর আগেও আরও অনেকের সঙ্গেই এমনটা ঘটিয়েছে সে। তার নামে মুম্বইয়ের বিভিন্ন থানায় সাত-সাতটি মামলা দায়ের করা আছে।

বান্দ্রা থানার পুলিশ জানিয়েছে, গত মাসের ১৮ তারিখে বান্দ্রা স্টেশনে ট্রেন থেকে নেমে পালি হিলের অফিসে যাচ্ছিলেন ওয়াডালা এলাকার বাসিন্দা রেহানা। অফিসের সামনেই অবস্থিত এটিএমটি-তে টাকা তোলার জন্য ঢোকেন তিনি। কিন্তু যে কোনও কারণেই হোক, টাকা তুলতে সমস্যা হয় তাঁর। সেই সময়েই এটিএমের কাচের দরজার বাইরে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করছিল ভূপেন্দ্র। রেহানাকে টাকা তুলতে সাহায্য করার ছুতোয় এটিএম-এর ভিতরে ঢোকে সে। এ কথা-সে কথার মাধ্যমে, সাহায্য করার ভান করে, একে একে রেহানার ডেবিট কার্ডের সমস্ত ডিটেল জেনে নেয়। এমনকী জেনে নেয় পাসওয়ার্ডও। যদিও সে ‘সাহায্য’ করার পরেও শেষমেশ টাকা তুলতে পারেননি রেহানা।

এর পরে এটিএম থেকে বেরিয়ে অফিসে চলে যান রেহানা। আর অফিসে ঢোকার সঙ্গে সঙ্গেই ফোনে মেসেজ পান, তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে ১০ হাজার টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে! সঙ্গে সঙ্গে ফের এটিএম-এ ছুটে আসেন রেহানা। কিন্তু তখন প্রত্যাশিত ভাবেই আর কেউ ছিল না সেখানে।

কিন্তু হাল ছাড়েননি রেহানা। তিনি কোনও না কোনও ভাবে নিশ্চিত ছিলেন, অপরাধী এক বার না এক বার ঘটনাস্থলে ফিরে আসবেই। তাই ঘটনার পরে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করার পরে, প্রতিদিন নিজে এক বার করে ওই এটিএম-এ যেতেন তিনি। ঘোরাঘুরি করতেন বেশ খানিক ক্ষণ। এভাবেই চলে ১৭ দিন।

শেষমেশ চলতি মাসের চার তারিখে পাখি ধরা দিল ফাঁদে। এটিএমের বাইরেই অভিযুক্ত যুবককে দেখতে পান রেহানা। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে ফোন করে খবর দেন তিনি। অভিযোগ আগেই দায়ের করেছিলেন জালিয়াতির। পুলিশ পদক্ষেপ করতে দেরি করেনি। হাতেনাতে ধরে ফেলে অভিযুক্ত প্রতারককে।

Shares

Comments are closed.