বুধবার, নভেম্বর ২০
TheWall
TheWall

মহারাষ্ট্রে বিজেপি-শিবসেনা জোট সরকার গড়বে, দেবেন্দ্রই মুখ্যমন্ত্রী, বললেন গড়করি

দ্য ওয়াল ব্যুরো : মহারাষ্ট্রে নতুন সরকার গঠনের সময়সীমা শেষ হচ্ছে শুক্রবার। শিবসেনা ও বিজেপির মধ্যে মতবিরোধ দূর হওয়ার কোনও সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না। এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতিন গড়করি বললেন, আমরা শিবসেনার সঙ্গে জোট বেঁধে সরকার গড়ব। দেবেন্দ্র ফড়নবিশই ফের মুখ্যমন্ত্রী হবেন।

এদিন আচমকাই দিল্লি থেকে নাগপুরে উড়ে যান গড়করি। সেখানে আরএসএসের সদর দফতরে গিয়ে কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলেন। অনেকের ধারণা হয়, কীভাবে শিবসেনার সঙ্গে বিরোধের নিষ্পত্তি করা যাবে তা নিয়ে সঙ্ঘের নেতাদের সঙ্গে গড়করি কথা বলেছেন। গুজব ছড়িয়ে পড়ে, দেবেন্দ্র ফড়নবিশের বদলে তাঁকেই হয়তো মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হতে বলা হবে। শিবসেনা দেবেন্দ্র ফড়নবিশের ওপরে বিরক্ত হয়েছে। কারণ তিনি আগেই পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রীর পদ ছাড়বেন না। কিন্তু গড়করি মুখ্যমন্ত্রী হলে সম্ভবত শিবসেনা আপত্তি করবে না।

এক প্রশ্নের জবাবে গড়করি অবশ্য বলেন, আমি দিল্লিতে আছি। মহারাষ্ট্রে আমার যাওয়ার প্রশ্নই নেই। বিজেপির এক প্রতিনিধি দল এদিন মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারির সঙ্গে দেখা করতে যাবে বলে জানা গিয়েছে।

গত মাসে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি পেয়েছে ১০৫ টি আসন। শিবসেনা পেয়েছে ৫৬ টি আসন। দুই দল মিলে ২৮৮ আসনের বিধানসভায় স্বচ্ছন্দে সরকার গড়তে পারত। কিন্তু ২৪ অক্টোবর ভোটের ফল বেরোনর পরেই শিবসেনা জানিয়ে দেয়, ৫০-৫০ ফরমুলায় সরকার গড়তে হবে। মুখ্যমন্ত্রীর পদটি তাদের ছেড়ে দিতে হবে আড়াই বছরের জন্য।

শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে দাবি করেন, গত লোকসভা ভোটের আগে বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ তাঁকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, বিধানসভা ভোটের পরে ৫০-৫০ ফরমুলায় সরকার গঠিত হবে। যদিও বিজেপি তেমন প্রতিশ্রুতি দেওয়ার কথা অস্বীকার করেছে।

Comments are closed.