২০২০র কমেডি ওয়াইল্ড লাইফ ফোটোগ্রাফি অ্যাওয়ার্ডে কে পেল সেরার সেরা শিরোপা? কেনই বা পেল?

১৯৯

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো:  ২০২০ সালে কমেডি ওয়াইল্ড লাইফ ফোটোগ্রাফি অ্যাওয়ার্ডের সেরা ছবিগুলো ঘোষণা করা হয়েছে ক’দিন আগেই। একটি রাগি কচ্ছপের ছবিকে সেরা ছবির শিরোপা দেওয়া হয়েছে। ছবিটি তোলেন মার্ক ফিটজপ্যাট্রিক। অস্ট্রেলিয়ার কুইনসল্যান্ডে লেডি এলিয়ট দ্বীপের সমুদ্রে সাঁতার কাটতে কাটতেই তিনি ছবিটি তোলেন বলে জানিয়েছেন।

কচ্ছপেরা সাধারণত শান্ত, ধীর-স্থির, লাজুক প্রকৃতির হয় বলেই আমরা জানি। কচ্ছপের বুদ্ধি নিয়ে আবার নানারকম গল্পও চালু আছে। কিন্তু একি! কচ্ছপ এমন রাগও করে! আবার সেই রাগের প্রকাশও করে! মার্কের তোলা ছবি দেখে চমকে গেছেন অনেকেই। নিঃসন্দেহে প্রশংসার যোগ্যও ছবিটি। পশু, পাখির ছবি তোলা এমনিও সহজ নয়। আর তাদের এক্সপ্রেশন, মুড, পরিবর্তমান বডিল্যাঙ্গুয়েজ -এগুলো ক্যামেরাবন্দি করা তো আরই কঠিন। এমনই একটি বিরল মুডের ছবি তুলে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন এই আলোকচিত্রী।

মার্ক জানান সমুদ্রে সাঁতার কাটার সময় তিনি একটু বিরক্তই করছিলেন কচ্ছপটাকে। শেষে রেগে গিয়ে প্রায় তেড়েই আসে কচ্ছপটি। শুধু তাই নয়, মার্কের সামনে সে এমনভাবে তার ডানা তুলে ধরে, দেখে মনে হবে হাতের মধ্যমা তুলে দেখাচ্ছে। একটুও সময় নষ্ট না করে সেই অসাধারণ মুহূর্তটিকে ক্যামেরায় ধরে রাখেন মার্ক। ছবিটির ক্যাপশন দেন ” টেরি দ্য টার্টল ফ্লিপিং দ্য বার্ড”। ছবিটি ক্রিয়েচার্স আন্ডার দ্য সি অ্যাওয়ার্ডও জেতে।

অন্যদিকে চার্লি ডেভিডসনের তোলা র্যাকুনের ছবিটি জেতে অ্যালেক্স ওয়ালকার সেরিয়নস ক্রিয়েচারস অন দ্য ল্যান্ড অ্যাওয়ার্ড। র্যাকুন হল আমেরিকার ভল্লুকজাতীয় এক ধরনের প্রাণী। গাছের ফাঁকে ছোট্ট প্রাণীর পা দুটো বেড়িয়ে আছে, দেখে মনে হবে সবে যেন ঘুম থেকে উঠে আড়মোড়া ভাঙছে। চার্লি ছবিটির ক্যাপশনও দিয়েছেন ভারি মজার, ” অলমোস্ট টাইম টু গেট আপ!”

আবার টিম হার্ন জিতে নেন ‘স্পেকট্রাম ফোটো ক্রিয়েচার্স ইন দ্য এয়ার’ অ্যাওয়ার্ড। একটা নীল রঙের ছোট্ট মাছি ঘুম ভাঙার পরই লুকিয়ে পরে ঘাসের আড়ালে। সে টের পায় তার সামনেই ফোটোগ্রাফার। ঘাসের আড়ালে শরীর লুকিয়ে, শুধু চোখদুটো বের করে রাখে। এই অবস্থায় ছবিটি তোলেন টিম। ক্যাপশন দেন “হাইড অ্যান্ড সিক!”।

রোনাল্ড ক্রানিটজের তোলা কাঠবিড়ালির ছবিটি আবার ‘অ্যাফিনিটি পিপলস চয়েজ’ অ্যাওয়ার্ড জিতে নেয়। মুখের কাছে হাত নিয়ে কাঠবেড়ালিটা এমনভাবে দাঁড়িয়ে আছে, দেখে মনে হবে হাতে মাইক নিয়ে গান গাইছে যেন। ছবিটির নাম দেওয়া হয়েছে “সিঙ্গিং স্কুইরেল”।

 

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More