বুধবার, ডিসেম্বর ১১
TheWall
TheWall

স্বামী বড্ড বেশি ভালোবাসে, তাই ডিভোর্স চাইছি!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: যাহা চাই তাহা ভুল করে চাই,যাহা পাই তাহা চাই না……

দাম্পত্য জীবনে কোনও চড়াই উতরাই নেই।  স্বামী রোজই অনেক গিফ্ট দেন।  ঘর গেরস্থালির কাজেও সাহায্য করতে এগিয়ে আসেন।  তাই এত সুখ আর ভালো লাগছে না স্ত্রীয়ের।  তিনি বিবাহ বিচ্ছেদের আবেদন করেছেন!

সংযুক্ত আরব আমিরশাহির শরিয়া আদালতে নিজের ঝগড়া বিহীন দাম্পত্য নিয়ে ফুজাইরা অভিযোগ জানিয়ে বিচ্ছেদ চেয়ে বসেছেন।  তাঁর বক্তব্য একসঙ্গে থাকছেন বছর খানেক, অথচ তাঁর উপরে বর কোনওদিন কোনও অভিযোগ করেননি।  চিৎকার করে তাঁদের ঝগড়া অশান্তি হয়নি কখনও।  সব সময়ে বর তাঁর প্রয়োজনের চেয়েও বেশি উপহার দিয়েছেন, না বলতেই ঘরের সব কাজ নিজে থেকে এগিয়ে এসে করে দিয়েছেন, তাই দমবন্ধ লাগছে তাঁর।  অন্তত একটা দিন ঝগড়া হোক সবসময় মনে মনে চেয়ে এসেছেন তিনি।  কিন্তু কোনও ভাবেই কোনও কাজে আসেনি তাঁর এই প্রার্থনা।  বরং সবকিছু উল্টোই হয়েছে।  সব ভীষণরকম ঠিকঠাক।

খালিজ টাইমস-এ এই খবর বেরিয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে যাঁর প্রতি অতিরিক্ত ভালোবাসার অভিযোগ, সেই আভাগা বর বলছেন অনেক চেষ্টা করেও কখনওই তাঁর স্ত্রীয়ের কোনও আচরণেই তাঁর মনে হয়নি তাঁর উপর চিৎকার করা যায়।  অনেকেই এ নিয়ে সেই ব্যক্তিকে বলেওছেন যাতে কিছু অন্তত স্ত্রীকে তিনি বলেন।  একটু কড়া কথা শোনানো আর কী! কিন্তু সে গুড়ে বালি।  কারণ বর শুধু চেয়েছেন বৌ সব সময়ে আনন্দে থাকুন, তাঁর জীবনের পথ যাতে মসৃণ হয়।  কোনও কিছুতে যাতে তিনি দুঃখ না পান! তাই আপাতত আদালতে সেই অভাগা ব্যক্তি অনুরোধ করেছেন যাতে তাঁর স্ত্রীকে বোঝানো হয় এই মামলা তুলে নিতে।  আপাতত আদালত এই যুগলকে আরও কিছুটা সময় দিচ্ছে নিজেদের মধ্যে আরও কথা বলে বিষয়টা মিটিয়ে নিতে।

কত শত অভিযোগ থানা-আদালতে যায়, অসুখী দাম্পত্যের।  এটাও হয় তো অসুখী দাম্পত্য, কিন্তু এর কারণ বাকি সবকিছুর চেয়ে আলাদা।  চাণক্য বলে গেছিলেন, যে কোনও কিছু অতিরিক্তই ভালো না।  এখানেও বেচারা বর অতিরিক্ত ভালোবেসে বলি হচ্ছেন।  সত্যি সেলুকাস……

Comments are closed.