সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৩

মুকুল পুত্রকে কেন বহিষ্কার করলেন না মমতা, কেন শুধু সাসপেন্ড করলেন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দল বিরোধী মন্তব্যের জন্য বোলপুরের তৃণমূল সাংসদ অনুপম হাজরাকে বহিষ্কার করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একই ভাবে বিষ্ণুপুরের প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদকেও বহিষ্কার করা হয়েছিল। অথচ বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের ছেলে তথা বীজপুরের তৃণমূল সাংসদকে সাসপেন্ড করলেন দিদি। বহিষ্কার করলেন না!
কেন? এক যাত্রায় পৃথক দাওয়াই কেন?

বস্তুত গত দেড় বছর ধরে বাংলার রাজনীতিতে একটা বিচিত্র রসায়ন ছিল কাঁচড়াপাড়ার রায় পরিবারকে ঘিরে। একদা তৃণমূলের সেকেন্ডম্যান মুকুল রায় বিজেপি-তে। অথচ তাঁর ছেলে শুভ্রাংশু রায় তৃণমূলের বীজপুরের বিধায়ক। ব্যাপারটা তবু হজম হতে পারত, যদি শুভ্রাংশুর নিজের কোনও ক্যারিশমা থাকত। বরং অনেকেই মনে করেন, বাবার আলোতেই আলোকিত ছেলে! সুতরাং আজ না হোক কাল বিজেপি-তে যাবেই।

আবার তৃণমূলের মধ্যে যাঁরা সবেতেই রহস্যের সন্ধান করেন, তাঁদের তত্ত্বের শেষ ছিল না। দলেরই এক সাংসদ সম্প্রতি ঘরোয়া আলোচনায় বলেন, মুকুলদার সঙ্গে দিদির নিশ্চয়ই যোগাযোগ রয়েছে। সবটাই হয়তো প্ল্যানমাফিক চলছে। বাংলায় বিজেপি-কে ডুবিয়ে ফের উনি ফিরে আসবেন দলে। ব্যারাকপুরে অর্জুন সিং হারবে, তার পর ওই আসন থেকে লোকসভা ভোটে লড়বেন শুভ্রাংশু। – এই সন্দেহপ্রবণতার মধ্যে কত রাত্রি জাগরণ রয়েছে হয়তো ইয়ত্তা নেই।

এখন প্রশ্ন হল, কেন মমতা বহিষ্কার করলেন না শুভ্রাংশুকে।

তৃণমূলের সূত্রের মতে, বহিষ্কার করলে শুভ্রাংশুর বিধায়ক পদ থেকে যাবে। তখন অনায়াসে বিজেপি-তে যোগ দিতে পারবেন শুভ্রাংশু। বিধানসভার উপ নির্বাচনেরও প্রয়োজন হবে না। কিন্তু সাসপেন্ড করলে আনুষ্ঠানিক ভাবে বিজেপি-তে শুভ্রাংশুর অসুবিধা থাকবে। তাঁকে বিধানসভা থেকে ইস্তফা দিয়ে বিজেপি-তে যেতে হবে। সে ক্ষেত্রে তাঁকে উপ নির্বাচনের মুখোমুখি হতে হবে। কারণ, তৃণমূল থেকে ইস্তফা না দিয়ে বিজেপি-তে যোগ দিলে, তৃণমূল বিধানসভার স্পিকারের কাছে আবেদন জানাবে, যাতে শুভ্রাংশুর বিধায়ক পদ খারিজ করে দেওয়া যায়।

তবে বিজেপি নেতৃত্বের বক্তব্য, বিধানসভার নিয়মকানুন তৃণমূল কবে মেনেছে? কংগ্রেস বা বাম বিধায়কদের মধ্যে যাঁরা তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন, তাঁরা বিধানসভা থেকে ইস্তফা না দিয়েই তৃণমূলের পতাকা হাতে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে এ ব্যাপারে নালিশ করা হলেও তিনি ওঁদের সদস্যপদ খারিজ করেননি। তা ছাড়া বাংলায় উপ নির্বাচন হলেও ফল তৃণমূলের অনুকূলে যাবে কি? লোকসভা ভোটের সঙ্গে বিধানসভার আটটি আসনে উপ নির্বাচন হয়েছে। তার মধ্যে তো বিজেপি জিতে নিয়েছে চারটি আসন। কংগ্রেস ১ টি। তৃণমূল পেয়েছে মাত্র তিনটি আসন।

আরও পড়ুন-

#Breaking: মুকুলপুত্রকে সাসপেন্ড করলেন মমতা, ঘোষণা পার্থর

Comments are closed.