রবিবার, সেপ্টেম্বর ২২

শ্রাবণে শিবের পুজোয় মেলে নয় সুফল, জেনে নিয়ে মেনে চলুন নিয়ম

অনির্বাণ

হিন্দু পরম্পরা অনুযায়ী, শ্রাবণ বছরের পবিত্রতম মাস। বছরের অন্য সময়ে শিব-উপাসনা করলে যা ফল লাভ হয়, তার চাইতে শ্রাবণে শিবব্রত পালন ১০৮ গুণ ফল দেয় বলে জানায় ‘শিব পুরাণ’। বিশেষত শ্রাবণ মাসের সোমবারগুলিতে বিশেষ উপবাস ও পালন দেবাদিদেবকে তুষ্ট করার জন্য শুভতম অবসর।

কিন্তু ভক্তের মনে প্রশ্ন জাগতেই পারে, এই ব্রতের ফল কী। তার উত্তরও দিয়েছে সহস্র বছরের পুরনো এই শাস্ত্র। জেনে নেওয়া যাক, শ্রাবণ শিবব্রতের প্রধান ফলগুলিকে।

• প্রথমেই জেনে রাখা ভাল, শ্রাবণ শিবব্রত ধারণে বিবিধ গ্রহদোষ নাশ হয়। বিশেষ করে কুপিত শনি এতে শান্ত হন।

• শ্রাবণ সোমবারগুলিতে মধু, ঘৃত ও আখ-সহযোগে রুদ্রাভিষেক পূজা জীবনে সুখ ও সমৃদ্ধি এনে দেয় বলে বিশ্বাস।

• পুরাণ মতে, শ্রাবণ মাসেই সমুদ্রমন্থন ঘটেছিল। এবং সমুদ্র থেকে উঠে আসা তীব্র বিষ হলাহলকে নিজ কণ্ঠে ধারণ করে শিব ‘নীলকণ্ঠ’ হন। ঘটনাটি প্রতীকী। এই মাসে শিবব্রত পালনে যাবতীয় বিষ নাশ হয় বলেই মনে করে ভারতীয় সনাতন জীবনধারা।

• শিব বৈদ্যরাজ। তিনিই আয়ুর্বেদের উদ্গাতা। শ্রাবণে তাঁর উপাসনায় বিনষ্ট হয় অসুস্থতার সম্ভাবনা। নীরোগ জীবনের জন্যই হিন্দুরা শ্রাবণ শিবব্রত পালণ করেন।

• শ্রাবণ শিবব্রত পালনের কালে মহামৃত্যুঞ্জয় মন্ত্র জপ মহাভয় থেকে রক্ষা করে, মন থেকে মৃত্যু-সংক্রান্ত বিষাদ দূর হয়।

• শ্রাবণে শৈবতীর্থে গমন বিশেষ পবিত্র বলে বিবেচিত। এই কাজে বিপুল পুণ্য সঞ্চিত হয়।

• শ্রাবণের শনিবারগুলিও বিশেষ পবিত্র। এই দিনগুলিতে শনিদেবের তৈলাভিষেক পূজা করলে অশুভ শক্তি দূর হঠে।

• শ্রাবণে শিবলিঙ্গে গঙ্গাজল প্রদান বিগত জন্মের পাপকে নাশ করে বলে মনে করে ভারতীয় সনাতনী বিশ্বাস।

• শ্রাবণ সোমবারের উপবাস ইচ্ছাশক্তিকে বাড়ায়। স্মৃতি শক্তিকেও বিবর্ধিত করে বলে বর্ণনা করে শাস্ত্র।

Comments are closed.