মনোনয়ন পর্ব থেকে শুরু হয়ে সন্ত্রাসের আঁচ কমছে না ভোট গণনার পরেও

0

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসের অভিযোগ উঠেছে নদিয়ার পায়রাডাঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের ২ নং প্রীতিনগর এলাকায়। বৃহস্পতিবার রাতে বাড়ি ফিরছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের জয়ী পঞ্চায়েত সদস্য সন্ধ্যা রায়ের স্বামী সমীর রায়। অভিযোগ সে সময় তাঁর উপর হামলা চালান আরএসপির কয়েকজন সদস্য। অভিযোগের তির আরএসপি-র নিরঞ্জন দেবনাথ, পরেশ ওঝা সহ বেশ কয়েকজনের উপর। মারধরের ঘটনায় সমীরবাবু ছাড়াও আহত হয়েছেন আরও দু’জন। এর পর স্থানীয় বাসিন্দারা আক্রমণকারীদের ধরে ফেলে। পাল্টা মার দেওয়া হয় তাদেরও। আহতরা রানাঘাট মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে রানাঘাট থানায়। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হয়েছে একটি দিশি পিস্তল।

অন্যদিকে, ধূপগুড়িতে ভোটে জিতে হামলা চালানোর অভিযোগ উঠেছে বিজেপি’র বিরুদ্ধে। অভিযোগ ধূপগুড়ি সাকোয়াঝোড়া এলাকার ১৫/১৫৫ নং বুথে তৃণমূলকে ভোট দেওয়ায় তৃণমূল প্রার্থীর বাড়ি সহ আশে পাশের সমর্থকদের বাড়িতে প্রথমে পাথর বৃষ্টি ও পরে ভাংচুর চালায় বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। ধূপগূড়ি পৌরসভার ভাইস চেয়ারম্যান রাজেশ সিং জানিয়েছেন থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। যদিও গোটা ঘটনাটি অস্বীকার করেছে বিজেপি। বিজেপি নেতা জয়ন্ত চক্রবর্তী বলেছেন, এটা তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফলাফল।

ভোট গণনার পর থেকেই সন্ত্রাসের বাতাবরণ তৈরি হয়েছে চোপড়ার দাসপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতর গোয়াবাড়ি এলাকায়। বৃহস্পতিবার রাত থেকেই শুরু হয়েছে বাড়িঘর ভাঙচুর। বোমা-বন্দুক নিয়ে চলেছে হামলা। শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছেন বাড়ির মহিলারাও। বন্ধ রয়েছে এলাকার সমস্ত দোকানপাট। অবাধে চলছে লুঠপাট। রাস্তার মোড়ে মোড়ে বোমা-বন্দুক নিয়ে টহল দিচ্ছে দুষ্কৃতীরা। থমথমে পরিস্থিতিতে এলাকায় ঢুকতে পারছে না পুলিশ।

নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পরেই তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলে উত্তপ্ত দিনহাটার গীতালদহ এলাকা। শুক্রবার সকালে ওই এলাকার এক বিজয়ী পঞ্চায়েত প্রার্থীর স্বামীকে বেধড়ক মারধর করে দুষ্কৃতীরা। আহতের নাম মাফুজার  রহমান। মাথায় এবং পায়ে আঘাত নিয়ে দিনহাটা হাসপাতালে ৰতি করে হয়েছে মাফুজারকে। খবর পেয়ে হাসপাতালে আসেন মন্ত্রী উদয়ন গুহ। অবিলম্বে অশান্তি বন্ধের নির্দেশ দেন তিনি। অন্যদিকে, মাফুজারকে মারার সন্দেহে এক ব্যক্তিকে আটক করে স্থানীয় তৃণমূল কর্মীরা। হাসপাতাল চত্বরে তাকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ।

নির্বাচনী ফলাফল বের হওয়ার পরই পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যালয়। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের গলসি ১ নম্বর  ব্লকের লোয়া রামগোপালপুর পঞ্চায়েতে। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে আগুন লাগে তৃণমূলের কার্যালয়ে। পুড়ে যায় অফিসে থাকা সমস্ত কাগজপত্র এবং দলীয় পতাকা।

 

 

 

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More