Latest News

Monkey Video: টোটো চড়ে বাঁদর এল বাজারে, জলপাইগুড়িতে হইহই! সে কী কী করল, দেখুন ভিডিও

জলপাইগুড়ির দিনবাজার এলাকায় তখন বিকেলের পসরা। রাশিরাশি ফল, তার ওপরই তড়াক করে লাফ দিয়ে উঠল বাঁদর। শুরু হল তার বাঁদরামি।

এদিকে দোকানদার তো শুরুতে পালাচ্ছিলেন, কিন্তু তারপর বুঝলেন সে বাঁদরও নাছোড়বান্দা। কখনও স্ট্রবেরি, কখনও কলার দিকে আঙুল দেখিয়ে সেগুলো পেড়ে দিতে বলে যাচ্ছে। দোকানদারও বাঁদরকে কলা, কাজুবাদাম, পুরনো তেঁতুল খাইয়ে যথা সম্ভব আপ্যায়ন করলেন। তার মধ্যেই দোকানদারের মোবাইলটা বাগে পেয়ে সেটাকেও কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করল বাঁদর। কী দেখল কে জানে, তারপর আবার একলাফে ফিরে গেল টোটোয়। টোটো চালক সুরজের সঙ্গে তার বিশাল বন্ধুত্ব হয়ে গেছে। টোটো নিয়ে সুরজও এতক্ষণ দাঁড়িয়েছিলেন বাজারেই।

বাঁদর আবার তাঁর সঙ্গেই ফিরল, শহরে। তারপর কী হল বলার আগে মনে করানো যাক, এই সেই আদুরে বাঁদর। রবিবার থেকে যাকে নিয়ে সাড়া পড়ে গেছে জলপাইগুড়ি শহরে। রাস্তাঘাটে যার তার ঘাড়ে উঠে ভাব জমাতে চাইছে বাঁদরটা। তবে এলাকাবাসীর ধারণা সে কারও পোষা বাঁদর ছিল, বেরিয়ে এসেছে কোনও ভাবে। কিন্তু তাকে নিয়ে কী যে করা যায়!

রবিবার কংগ্রেস পাড়া ক্লাবে প্রথম দেখা গেছিল বাঁদরকে। ক্লাব সদস্যদের ঘাড়ে মাথায় উঠে আদর খেয়েছিল সেদিন তারপর কোথায় পালিয়েছিল কে জানে। আবার সে বেছে নেয় টোটো চালক সুরজকে। তাঁর টোটো চড়েই সারাদিন ঘুরে বেড়ায় বাঁদর।

তবে এর মধ্যেই খবর যায় পরিবেশ কর্মী বিশ্বজিত দত্ত চৌধুরীর কাছে। তিনি কাছে এলে বাঁদর আবার তড়াক করে তাঁর কোলে গিয়ে ওঠে। বিশ্বজিত বাবু বাঁদরকে নিজের বাড়ি নিয়ে যান। কিন্তু তারপর যা হল!

এমন হুড়োহুড়ির মাঝে বিশ্বজিত বাবুর স্ত্রী বাঁদরকে ধরতে গেলেন কিন্তু বন্ধুবৎসল সেই বাঁদর এই প্রথম ক্ষেপে গিয়ে আঁচড়ে কামড়ে দিল তাঁর হাতে! সে নিয়ে আবার হলুস্থলু, বাঁদররের সঙ্গে ভয়াবহ একটা রাত কাটল পরিবেশ কর্মী ও তাঁর স্ত্রীর।

তারপরই মুক্তি, বিশ্বজিৎবাবু বন দফতরে খবর দিলে মঙ্গলবার সকালেই বন কর্মীরা এসে সেই বাঁদরকে উদ্ধার করে নিয়ে যান।

You might also like