Latest News

Kolkata Tradition: ভিস্তিওয়ালারা আজও আছেন, মশকের জল কারা নেন! দেখুন ভিডিও

‘তখন বেগে ছুটিল ঝাঁকে ঝাঁক, মশক কাঁখে একুশ লাখ ভিস্তি, পুকুরে বিলে রহিল শুধু পাঁক, নদীর জলে নাহিকো চলে কিস্তি…’ রবি ঠাকুর ‘জুতো আবিষ্কার’ কবিতায় এভাবেই ‘ভিস্তি’দের বর্ণনা করেছিলেন। তৎকালীন কলকাতা শহরের অলিগলিতে সকাল-বিকেল কাঁধে কালো চামড়ার ব্যাগ ঝুলিয়ে বেরিয়ে পড়তেন একদল মানুষ। হাঁক দিতেন, ‘ভিস্তি আবে ভিস্তি’। আর সেই ডাক শুনেই বাসিন্দারা বুঝতে পারতেন তাঁদের জন্য পানীয় জল নিয়ে হাজির হয়েছেন ‘ভিস্তিওয়ালা’।

এখন কলকাতা শহরে আর সেই ডাক শোনা যায় না বটে, তবে কিছু ‘ভিস্তিওয়ালা’ আজও আছেন মধ্য কলকাতার বুকে। বাঁধা বাড়িতে চামড়ার থলিতে করে জল পৌঁছে দেন তাঁরা। কলকাতার রিপন স্ট্রিট, রফি আহমেদ কিদওয়াই রোড, ইলিয়ট রোড, মারকুইস স্ট্রিট সহ কিছু এলাকার বাড়িতে বাড়িতে বা দোকানে দোকানে জল সরবরাহ করেন তাঁরা।

You might also like