মঙ্গলবার, নভেম্বর ১২

নির্মলাকে স্বামীর পরামর্শ, মনমোহন মডেল অনুসরণ করুক সরকার, কিংবা নরসিংহ রাওকে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : কিছুদিন আগেই দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুর অর্থনৈতিক ভাবনার সমালোচনা করেছিল বিজেপি। এবার বিজেপির পালটা সমালোচনা করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমনের স্বামী পরকলা প্রভাকর। একইসঙ্গে তিনি বলেন, সরকার এখন অপর দুই প্রাক্তন কংগ্রেসী মুখ্যমন্ত্রী পি ভি নরসিংহ রাও এবং মনমোহন সিং-এর অর্থনৈতিক মডেল অনুসরণ করুক। তবে অর্থনীতি বিপর্যয় থেকে রক্ষা পাবে।

৬০ বছর বয়সী পরকলা প্রভাকর একসময় অন্ধ্রপ্রদেশ সরকারের উপদেষ্টা ছিলেন। সোমবার এক সর্বভারতীয় দৈনিকে প্রবন্ধ লেখেন। তাতে বলা হয়েছে, সর্দার বল্লভভাই পটেলকে যেমন বিজেপি রাজনীতিতে নিজের আইকন বানিয়েছে, তেমন অর্থনীতিতে আইকন বানাতে পারে নরসিংহ রাওকে।

প্রভাকর প্রবন্ধের শুরুতেই বলেছেন, সরকার এখনও স্বীকার করছে না যে, অর্থনীতি মন্দার মুখে পড়েছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত যে তথ্য পাওয়া গিয়েছে, তাতে বোঝা যায়, আমরা রীতিমতো চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছি। যতদূর মনে হয়, সরকার এখনও বুঝতে পারেনি, অর্থনীতির দূরবস্থার কারণ কী।

পরে নির্মলা সীতারমনকে তাঁর স্বামীর ওই প্রবন্ধ সম্পর্কে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ২০১৪ থেকে ’১৯ সালের মধ্যে সরকার অনেকগুলি গুরুত্বপূর্ণ সংস্কার করেছে। জিএসটি চালু করা তার অন্যতম। নির্মলার প্রতিক্রিয়া থেকেই পরিষ্কার যে তিনি বিতর্ক ও অস্বস্তি এড়ানোর চেষ্টা করেছেন।

পর্যবেক্ষকদের মতে, কেন্দ্রে নরেন্দ্র মোদী সরকারের প্রথম মেয়াদে যেমন বড় কোনও অর্থনৈতিক সাফল্য নেই। তেমনই দ্বিতীয় মেয়াদে নির্মলা সীতারমনকে অর্থমন্ত্রী করার পরও বিশেষ পরিবর্তন কিছু হয়নি। চলতি অর্থ বছরের গোড়া থেকেই অর্থনীতির মন্দগতি শুরু হয়েছে। বিশ্ব ব্যাঙ্ক থেকে শুরু করে যাবতীয় রেটিং সংস্থারই মত হল, এই আর্থিক বছরেও ৬ শতাংশের বেশি বৃদ্ধির আশা নেই। অন্যদিকে ঘরোয়া অর্থনীতিতে চাহিদা কম। শিল্পোৎপাদনের হারও কম। এই পরিস্থিতিতে পরকলা-র সমালোচনা ক্ষতের উপর নুনের ছিঁটের মতোই।

অনেকে আবার মনে করছেন, হয়তো নির্মলাকে জানিয়েই এহেন মত প্রকাশ করেছেন পরকলা। কারণ, নির্মলা নামেই অর্থমন্ত্রী। অর্থমন্ত্রকের যাবতীয় নীতি নির্ধারণ করছে প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়ই। ফলে পরকলার কথায় যে হতাশা ধরা পড়েছে, কে বলতে পারে নির্মলা সে ব্যাপারে এক মত নয়!

 

 

Comments are closed.