বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২১
TheWall
TheWall

আইনজীবীরা আমাকে আক্রমণ করেছেন, পিস্তল খোয়া গিয়েছে, অভিযোগ মহিলা আইপিএস অফিসারের

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গত শনিবার দিল্লির তিস হাজারি কোর্টে গাড়ি পার্কিংকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার বাধে আইনজীবী ও পুলিশকর্মীদের মধ্যে। তার কয়েকদিন বাদে জানা গেল, এক মহিলা আইপিএস অফিসার অভিযোগ করেছেন, শনিবার তিনি আইনজীবীদের হাতে আক্রান্ত হয়েছিলেন। তাঁর সার্ভিস পিস্তলটি খোয়া গিয়েছে। কিন্তু পুলিশ এখনও তাঁর এফআইআর নিতে রাজি হয়নি।

ইতিমধ্যে শনিবারের অশান্তি নিয়ে বেশ কয়েকটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ্যে এসেছে। একটি ফুটেজে দেখা যায়, আইনজীবীরা গাড়িতে আগুন লাগানোর চেষ্টা করছেন। অন্যদিকে পুলিশকর্মীরা আইনজীবীদের আক্রমণ থেকে বাঁচার জন্য লুকিয়ে আছেন একটি ঘরে। ভেতর থেকে ঘরের দরজা বন্ধ করে দিয়েছেন। এর মধ্যে ওই মহিলা আইপিএস অফিসারের অভিযোগের কথা জানাজানি হতে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে নানা মহলে। তিনি বলেছেন, তাঁর কাছে একটি লোডেড নাইন এম এম সার্ভিস পিস্তল ছিল। শনিবার গন্ডগোলের পর থেকে তিনি পিস্তলটি খুঁজে পাচ্ছেন না। তিনি সহকর্মীদের বলেছেন, অভিযোগ জানিয়েও কোনও ফল হয়নি। বরং অভিযোগ জানানোর জন্য নিজেকেই তাঁর বোকা মনে হচ্ছে।

পুলিশ জানিয়েছে, তারা নির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া কারও বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারে না। এক পুলিশ অফিসার জানিয়েছেন, যত দ্রুত সম্ভব তদন্ত শেষ করার জন্য তাঁদের ওপরে চাপ দেওয়া হচ্ছে। সংবেদনশীল ব্যাপারগুলি গোপন রাখতে বলা হয়েছে। সেজন্যই ওই মহিলা অফিসারের অভিযোগ পেয়েও পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্তারা চুপচাপ রয়েছেন। অভিযোগকারিণীকেও ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে, তিনি চুপ করে থাকলেই ভালো হয়।

শনিবার আইনজীবীরা দাবি করেছিলেন, যে পুলিশ কনস্টেবল তাঁদের সহকর্মীকে গাড়ি পার্কিং করতে বাধা দিয়েছেন, তাঁকে তাঁদের হাতে তুলে দিতে হবে। এক পুলিশ অফিসার জানিয়েছেন, মারমুখী আইনজীবীদের দেখে তাঁরা ওই কনস্টেবলকে পরামর্শ দেন, ইউনিফর্ম খুলে সাধারণ পোশাক পরে নিতে। তাঁকে কোর্ট লক আপের ভিতরে অপরাধীদের মধ্যে বসিয়ে রাখা হয়।

Comments are closed.