শনিবার, মার্চ ২৩

সেনার কফিনের সামনে সেলফি! কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বিরুদ্ধে নিন্দার ঝড় সোশ্যাল মিডিয়ায়

দ্য ওয়াল ব্যুরো: নিহত জওয়ানের শেষকৃত্যে উপস্থিত থেকে তাঁর পরিবারের পাশে দাঁড়াতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সেখানে এমন কাণ্ড ঘটালেন, যে শেষমেশ বড়সড় বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন কেন্দ্রীয় পর্যটন মন্ত্রী আলফনস কান্ননথানম।

পুলওয়ামার জঙ্গি হানায় নিহত সিআরপিএফ জওয়ানের কফিনের সামনে দাঁড়িয়ে নিজের সেলফি তুললেন তিনি। তার পরে সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার পরই নিন্দার ঝড় বয়ে যায়।

নেটিজেনরা বলতে থাকেন, একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর কাছ থেকে এত বড় ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন’ আচরণ আশাই করা যায় না। অনেকেই বলেন, মন্ত্রী শোকের জায়গায় গিয়ে শোক ভুলে গিয়েছিলেন, স্বভাবমতোই নিজের ‘আত্মপ্রচারে’ ব্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন।

ঘটনার সূত্রপাত শনিবার। কেরালার ওয়ায়নাড় জেলায় ফেরে পুলওয়ামা জঙ্গি হানায় মৃত সিআরপিএফ জওয়ান বসন্ত কুমার ভিভি-র কফিনবন্দি দেহ। সেই কফিনের সামনে দাঁড়িয়ে যখন হাজার হাজার মানুষ তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে ব্যস্ত, সেই সময়েই সেলফি-টি তোলেন মন্ত্রী।

সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার সময়ে অবশ্য সেই সেলফির সঙ্গে একটি ক্যাপশনও দিয়েছিলেন তিনি। যাতে লেখা ছিল, “সিআরপিএফ জওয়ান বসন্তকুমারের শেষকৃত্য সম্পন্ন হচ্ছে তাঁর বাড়িতেই। তাঁর মতো মানুষদের জন্যই আমি এবং আমরা শান্তিতে বেঁচে থাকতে পারি। দেশ তাঁকে ভুলবে না।”

കാശ്മീരിൽ വീരമൃത്യു വരിച്ച സിആർപിഎഫ് ജവാൻ വിവി വസന്തകുമാറിന്റെ അന്ത്യകർമ്മങ്ങളിൽ പങ്കെടുത്തതുമായി ബന്ധപ്പെട്ടു ഒരു…

Alphons Kannanthanam এতে পোস্ট করেছেন শনিবার, 16 ফেব্রুয়ারি, 2019

যদিও, তাঁর লেখা এই শব্দগুলোতে একটুও পালিশ পড়েনি তাঁর আচরণে। সমালোচনার ঝড় বয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে।

এক নেটিজেন মন্ত্রীর ছবির তলায় লেখেন, “স্যার, আরও ভাল একটা ক্যামেরা ব্যবহার করতে পারতেন সেলফি তোলার সময়ে। এই ক্যামেরায় তো আপনার মুখের লজ্জাটাও ঠিকঠাক প্রকাশ পাচ্ছে না!”

আর এক জন লেখেন, “এইটা কি নাটক করার আদর্শ সময় বলে মনে হল আপনার?”

সূত্রের খবর, দু’টো ছোটো ছোটো সন্তান আছে শহিদ জওয়ান বসন্তকুমারের।

Shares

Comments are closed.