বুধবার, মার্চ ২০

পুলওয়ামা কাণ্ডের পরে কড়া পদক্ষেপ নিতে চাইছে ভারত, বললেন ট্রাম্প

দ্য ওয়াল ব্যুরো : শুক্রবারই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অরুণ জেটলি বলেছিলেন, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে যুদ্ধে চূড়ান্ত জয়লাভের জন্য সব রকম পদক্ষেপের কথাই ভাবা হচ্ছে। তার পরে কয়েক ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানালেন, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপের কথাই ভাবছে ভারত। দুই দেশের মধ্যে যেরকম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে, তাতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ট্রাম্প।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী বিস্ফোরণে ৪০ জনের বেশি সিআরপিএফ জওয়ান নিহত হন। আহত হন অনেকে। তারপরে দেশ জুড়ে শোকের ছায়া নেমে আসে। এই হামলার বদলা নেওয়ার জন্য সেনাবাহিনীকে ফ্রি হ্যান্ড দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানও হুমকি দেন, ভারত আক্রমণ করলে আমরাও ছেড়ে কথা বলব না। এর আগেই পুলওয়ামার হামলার নিন্দা করেছিল আমেরিকা। সেদেশের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছিলেন, আমরা ওই ঘটনা সম্পর্কে খোঁজ নিচ্ছি। এসম্পর্কে বিবৃতি দেওয়া হবে পরে।

শুক্রবার পুলওয়ামা নিয়ে বিবৃতি দিয়েছে আমেরিকা। ট্রাম্প তাঁর ওভাল অফিসে রিপোর্টারদের বলেছেন, এখন ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্ক খুব খারাপ হয়ে গিয়েছে। খুব বিপজ্জনক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। আমরা চাই, শত্রুতার অবসান হোক। আমরা এই প্রক্রিয়ায় জড়িত আছি।

ভারতের মনোভাব সম্পর্কে ট্রাম্প বলেন, তারা খুব কঠিন পদক্ষেপ নেওয়ার কথা ভাবছে। কিছুদিন আগেই তারা এক হামলায় প্রায় ৫০ জনকে হারিয়েছে। আমি তাদের মনোভাব বুঝি।

এই পরিস্থিতিতে আমেরিকার প্রশাসন শান্তির জন্যই চেষ্টা করছে বলে জানিয়েছেন ট্রাম্প। তাঁর কথায়, আমাদের প্রশাসন দু’পক্ষের সঙ্গেই কথা বলছে। অনেকেই কথা বলছে। খুব সূক্ষ ভারসাম্য রেখে চলতে হচ্ছে। কিছুদিন আগে যা ঘটে গিয়েছে, তাতে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে নানারকম সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে।

জঙ্গি হানার পরে ভারত কূটনৈতিক পথে লড়াই চালাচ্ছে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। তাদের আন্তর্জাতিক মহলে একঘরে করে ফেলার চেষ্টা হচ্ছে। পাকিস্তানের থেকে মোস্ট ফেভারড নেশনের স্বীকৃতিও কেড়ে নেওয়া হয়েছে।

ভারতের দাবি, জঙ্গি হানার মূল ষড়যন্ত্রীরা যে পাকিস্তানেই বসে আছে, তা নিয়ে অকাট্য প্রমাণ আছে তাদের হাতে। অন্যদিকে পাকিস্তান জানিয়েছে, ওই হামলার সঙ্গে তাদের কোনও সম্পর্ক নেই। একইসঙ্গে পুলওয়ামার ঘটনাকে গভীর উদ্বেগজনক বলেও মন্তব্য করেছে তারা।

Shares

Comments are closed.