Latest News

Browsing Tag

Aaj snaner din

আজ স্নানের দিন

অদিতি বসুরায় (১১) ওরা দাদাকে নিয়ে নিজেদের মধ্যে ডুবে যেত, আর আমি পাশে বসে চুপচাপ শুনতাম। দূরে সরে যেতে ইচ্ছে করত। বাবার মনে পড়ত না আমার কথা। মায়েরও না। বড়জোর, রাতে খেতে বসার আগে কাছেপিঠে না দেখতে পেলে জানতে চাইত, শমীকে দেখছি না।…

আজ স্নানের দিন

অদিতি বসু রায় (১০)— বাদ দাও বলে দিলেই কি বাদ দিয়ে দেওয়া যায় এসব ঘটনা, তুমি পারতে সবকিছু মাথা থেকে বের করে দিতে ?— পারতাম। অবশ্যই পারতাম। কেন পারা যাবে না? তোমার থেকে আমার সঙ্গেই তো ফরহানের চেনা জানা ছিল বেশি। আমিই যেখানে সব মাথা…

আজ স্নানের দিন

অদিতি বসুরায় (৯)প্রকাশকে সাইকেল তুলে নিল সে। এগিয়ে গেল বাড়ির দিকে। চারিদিকে জোনাকিরা ওড়াউড়ি শুরু করেছে ততক্ষণে। মা চিন্তা করছে ঠিক— এই ভেবে, সে, এবার খুব তাড়াতাড়ি প্যাডেল শুরু করল।— কেমন আছিস রে, তুই? রণো?প্রকাশ তার খুব কাছের…

আজ স্নানের দিন

(৮) কেন এই রাগ? ধর্ম, সে কী এমন ব্যাপার যা একেবারে অন্ধ করে ছাড়ে লোকজনকে? শতকের পর শতক ধরে হত্যা ছাড়া যে অন্য কোনও ভাষা শেখাতে পারল না মানুষকে— তার জন্য কীসের এত মোহ? বোঝে না সে। রণো  সাইকেল চালিয়ে যখন পৌঁছোয়, তখন…

আজ স্নানের দিন

অদিতি বসুরায় (৭) -ডাকছিলেন বাবা? -হ্যাঁ। বসো। তোমার মায়ের মুখে শুনলাম, একটা গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছ। আমি চুপ করে ভাবছি, কী বলা যায়। জানেন যখন সবই! -মেয়েটি শুনলাম, পিতৃ-মাতৃহীণ? আবার জিজ্ঞেস করলেন…

আজ স্নানের দিন

অদিতি বসুরায় (৬)রাজর্ষি সিংদেও   আগে এতো ঘুমের সমস্যা ছিল না।  আজকাল দেরি হয় ঘুম আসতে রাতে। সারাদিন এতো ব্যস্ত থাকি, তবু বিছানায় পড়লে আর কিছুতেই দু চোখের পাতা এক হতে চায় না । ভোরের দিকে সামান্য তন্দ্রা আসে। আর সকালে যখন সবার উঠে…

আজ স্নানের দিন

অদিতি বসুরায় (৫)অনেকেই বলে, মেয়েদের অবস্থান নাকি আমাদের এখনকার সমাজে অনেকখানি এগিয়েছে- আমাকে দেখে যাক তারা। সারা জীবন শুধু মেয়ে বলে আমাকে যা যা ঝামেলা পোহাতে হয়েছে, তা বলে শেষ করা যাবে না। মনে পড়ে, সেদিন আমার হাতে মাত্র কুড়িটি টাকা।…

আজ স্নানের দিন

 অদিতি বসুরায় তৃতীয় পর্ব খাবার টেবিলে গিয়ে দেখে, লুচি। আহা লুচি! সঙ্গে আলুর তরকারি। সাদা আলুর সঙ্গে কালো জিরে - কাঁচালঙ্কা দেওয়া তরকারি, তার খুব প্রিয়। মাও খাচ্ছে পাশে বসে। মা আবার লঙ্কা কামড়ে খায়। এতো ঝাল যে কি করে খায় মেয়েরা? মা টক খেতে…

আজ স্নানের দিন

অদিতি বসুরায় দ্বিতীয় পর্ব  -কিরে, ডাকছি যে কখন থেকে। শুনতে পাচ্ছিস না, নাকি? সে পাশ ফিরে ঘাপটি মেরে থাকার উদ্যোগ করে আবার। যদিও জানা কথা, মা এবার  ঠিক ঘরে ঢুকে পড়বে। -রণো, ওঠ, বাবা! চা ঠাণ্ডা হয়ে যাচ্ছে যে! -উঠছি তো ! -ওঠ, লক্ষী…