বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২
TheWall
TheWall

লোয়ার কেজি-নার্সারির ‘টপার’দের নাম ও ছবি দিয়ে বিশাল হোর্ডিং স্কুলের! নিন্দার ঝড় নেট দুনিয়ায়

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মাধ্যমিক বা উচ্চমাধ্যমিক বা জয়েন্ট এন্ট্রাসের টপারদের ছবি অনেকেই দেখতে পান বিজ্ঞাপনে। কখনও টিভির পর্দায়, কখনও বা খবরের কাগজে, কখনও বা শহরজোড়া হোর্ডিংয়ে। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বা শিক্ষা সংস্থা নিজেদের বিজ্ঞাপনে ব্যবহার করে প্রতিযোগিতায় জেতা টপারদের নাম বা ছবি।

কিন্তু হায়দরাবাদের রাস্তার একটি হোর্ডিংয়ে এবার অন্য এক প্রতিযোগিতার ছবি ধরা পড়ল। সে বিজ্ঞাপনেও রয়েছে টপারদের নাম ও ছবি। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় হল, তারা সকলেই নার্সারির ছোট্ট ছোট্ট শিশু! হায়দরাবাদের কোথাপেটের দ্য প্রিয়া ভারতী হাইস্কুলের নার্সারির ১০ জন ছাত্র এবং লোয়ার কেজির টপার লিস্টের ১৪ জন ছাত্রের নাম ও ছবি দিয়ে ইঁদুরদৌড়ের প্রকট বিজ্ঞাপন করল স্কুল। বাদ নেই আপার কেজির ১১ জন এবং ক্লাস ওয়ানের ৯ জন খুদেও।

এই হোর্ডিয়ের ছবি টুইট করেন কৃষ ইয়াধু নামের এক ব্যক্তি। তিনি লেখেন, “নার্সারি টপাররাও এবার বিজ্ঞাপনে! কিন্তু কিসের প্রতিযোগিতা? কে কত তাড়াতাড়ি দুধ খেতে পারে, সেটার?”

দেখুন সেই টুইট।

এর পরেই ভাইরাল হয়ে যায় ওই টুইট। ছিছিক্কার পড়ে যায় নেট-দুনিয়ায়। মাত্র চার-পাঁচ বছর বয়স থেকে এত ছোট বাচ্চাদের নিয়ে প্রতিযোগিতা, তাদের নিয়ে এরকম বিজ্ঞাপনের তীব্র নিন্দা করেছেন নেটিজেনরা।

ক্ষোভে ফুঁসে কেউ কেউ এমনও বলছেন, এই ভাবে যদি নার্সারি, এলকেজির টপারদের প্রতিযোগিতায় ফেলে দেওয়া হয়, তা হলে হয়তো সেই দিন বেশি দূরে নেই, যে দিন এই বাচ্চাগুলোকেও ভাল রেজাল্ট না করতে পারার হতাশায় আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে হবে।”

বহু মানুষ প্রশ্ন তুলেছেন, প্রতিযোগিতার দৌড়ের বিজ্ঞাপনের মুখ হিসেবে এই ছোট্ট শিশুরা কেন থাকবে? এত ছোট বাচ্চাদের কেন এমন প্রতিযোগিতায় নামানো হচ্ছে? এদের ব্যবহার করে এই স্কুলটি কী প্রমাণ করতে চাইছে? এটা বিষাক্ত মানসিকতার পরিচয়।

Comments are closed.