বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৭

‘ছোটবেলা থেকে বিশ্বাস করি, তাই শস্ত্রপুজো করেছি’! দেশে ফিরেই রাফায়েল নিয়ে জবাব রাজনাথের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: “যার যা বলার আছে বলতেই পারে। কিন্তু আমার যেটা ঠিক মনে হয়েছে এবং আমি যেটা বিশ্বাস করি, আমি সেটাই করেছি।”– বলে দিলেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। ফ্রান্সে গিয়ে রাফাল বিমান হাতে পেয়ে লেবু-লঙ্কা ঝুলিয়ে তাঁর ‘শস্ত্র পুজো’ করা নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে সারা দেশ জুড়ে। নানা রকম কটাক্ষ ও ব্যঙ্গে ভরপুর সোশ্যাল মিডিয়া। তার জবাবেই, বৃহস্পতিবার রাতে দেশে ফিরে এ কথা জানিয়ে দিলেন রাজনাথ।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর দাবি, তিনি ছোটবেলা থেকে এই পুজো দেখে এসেছেন, এবং বিশ্বাস করে এসেছেন অতিপ্রাকৃত শক্তির উপরে। তাই এই রাফাল বিমানের ক্ষেত্রেও এই কাজ করেছেন তিনি। এবং এতে কোনও অসুবিধা নেই কারও। তাঁর কথায়, “প্রতিটি ধর্মের মানুষেরই অধিকার আছে নিজের বিশ্বাস অনুযায়ী প্রার্থনা করার। অন্য কেউ তাঁর ধর্ম মতে এরকম কিছু করলে আমি কখনওই বাধা দেব না। এ নিয়ে কংগ্রেস কী বলছে, তাতেও আমার কিছু যায়-আসে না। কারণ কংগ্রেসের মতামতই দেশের মানুষের মতামত নয়।”

রাজনাথ সিংহ আরও জানান, সামনের বছর মে মাসের মধ্যে আরও সাতটি রাফায়েল যুদ্ধবিমান হাতে পেয়ে যাবে ভারত। এতে দেশের প্রতিরক্ষা শক্তি অনেকটাই জোরদার হবে বলে দাবি তাঁর। তবে তিনি মনে করিয়ে দেন, প্রতিরক্ষা শক্তি বাড়িয়ে কাউকে সন্ত্রস্ত করতে চাইছেন না তিনি। “প্রতি ঘণ্টায় ১৮০০ কিলোমিটার গতিতে উড়তে পারে এই বিমান। আমি নিজেই চড়েছি ১৩০০ কিলোমিটার গতিতে। এই রাফায়েল বিমান হাতে পাওয়ার সর্বোচ্চ কৃতিত্ব প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর।”– বলেন রাজনাথ।

তিনি আরও জানান, ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইম্যানুয়েল ম্যাক্রোঁর সঙ্গে আধ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে বৈঠক করেছেন তিনি। আলোচনা করেছেন এই বিমান নিয়ে।

মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিক ভাবে ফরাসি সংস্থা দাসল্ট রাফায়েল বিমান ভারতের হাতে তুলে দিয়েছে। প্যারিস থেকে ৫৯০ কিলোমিটার দূরে বোরডক্স শহরের আকাশে রাফায়েলের প্রথম মহড়া হয়। ককপিটে ছিলেন এক জন ফরাসি পাইলট। সেই যুদ্ধবিমানেই ছিলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রীও। তবে তিনি ছিলেন রিয়ার ককপিটে। মহড়ার আগে নিয়ম মেনে দশেরার শস্ত্র পুজো করেন রাজনাথ।

ফ্রান্সের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফ্লোরেন্স পার্লির সামনে বিমানের ওপরে সংস্কৃতে ‘ওম্‌’ শব্দটি লিখে দেন রাজনাথ। বিমানের গায়ে ফুল ছড়িয়ে দেন। প্রথা অনুযায়ী একটি নারকেল ভাঙেন। পরে বিমানের সামনে লেবু-লঙ্কা ঝুলিয়ে দেন। প্রথা অনুযায়ী, কোনও নতুন জিনিসকে শত্রুর হাত থেকে বাঁচানোর জন্য তার ওপরে লেবু-লঙ্কা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়।

এর পরেই কংগ্রেসের মল্লিকার্জুন খাড়গে বলেন, রাজনাথ যা করেছেন, তা তামাশা ছাড়া কিছু নয়। কংগ্রেস নেতা উদিত রাজও রাজনাথের সমালোচনা করেন। তাঁর কথায়, রাফায়েল বানিয়েছে ফ্রান্স। বায়ুসেনা ওই বিমান ব্যবহারের আগে তাতে নিম্বু-নারিয়েল ঝোলানো হয়েছিল। সারা বিশ্ব এতে কী ভাববে? আমাদের মধ্যে এই ধরনের কুসংস্কার আছে বলেই বিদেশ থেকে যুদ্ধবিমান কিনতে হয়। যেদিন কুসংস্কার দূর হবে, সেদিন আমরা নিজেরাই ওই ধরনের বিমান বানাতে পারব। তার জবাবে বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ বলেন, শস্ত্র পূজা আমাদের দেশের বহুকালের পুরানো প্রথা।

বৃহস্পতিবার ফের ‘শস্ত্রপূজা’ নিয়ে বিদ্রুপ করেন এনসিপি নেতা শরদ পওয়ারও। তিনি বলেন, দেশের নিরাপত্তার জন্য কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হলে আমাদের আপত্তি নেই। আমি শুনেছি, রাফায়েল বিমানের ওপরে লেবু-লঙ্কা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। ঠিক যেমন নতুন কেনা ট্রাককে শত্রুর অভিশাপ থেকে রক্ষা করার জন্য তাতে লেবু-লঙ্কা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়, যুদ্ধ বিমানে তেমন ঝোলানো হয়েছে।

পড়ুন, দ্য ওয়ালের পুজোসংখ্যার বিশেষ লেখা…

সুন্দরবনের  দুটি দ্বীপ, ভূমি হারানো মানুষ

Comments are closed.