বুধবার, মার্চ ২০

লাভ জেহাদ বন্ধ না হলে প্রতি শহরে পাকিস্তান হবে! এবার জানালেন উদয়পুরের বিধায়ক

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ফের বিতর্কের জন্ম দিলেন বিজেপি বিধায়ক৷ উত্তরপ্রদেশের মুজফ্ফরনগরের পরে এবার রাজস্থানের উদয়পুর।

দিন কয়েক আগেই মুজফ্ফরনগরের বিধায়ক বিক্রম সাইনি প্রকাশ্যে মন্তব্য করেছিলেন, “যাদের এ দেশে অসুবিধা হচ্ছে, যারা নিরাপদ বোধ করছে না, তারা আসলে দেশদ্রোহী। তাদের পেছনে বোমা বেঁধে ফাটানো উচিত।” দেশ জুড়ে সমালোচনার ঝড় বয়েছিল। অভিযোগ উঠেছিল, ভোটের আগে সাম্প্রদায়িক উস্কানি ছড়াচ্ছে বিজেপি। এবার একই অভিযোগ উঠল রাজস্থানের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী গুলাব চন্দ কাতারিয়ার বিরুদ্ধে। তিনি বললেন, “লাভ জেহাদ বন্ধ না হলে প্রতি শহরে পাকিস্তান হবে!”

রাজস্থানের উদয়পুরের বল্লভনগরে পার্শ্বনাথ মন্দিরের কাছে একটি জনসভায় বক্তব্য পেশ করতে গিয়ে কাতারিয়া আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে মোদীকে ভোট দেওয়ার কথা বলেন। এই প্রসঙ্গে হিন্দুদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার কথা বলে বিতর্কের শিরোনামে আসেন তিনি৷ জনসভায় তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলে ওঠেন, “সময় থাকতে দেশবাসী যদি জেগে না ওঠে, তা হলে প্রতি শহরে পাকিস্তান তৈরি হবে৷” তাঁর মতে, দেশে লাভ জেহাদের সংখ্যা বাড়ছে, তাই জয়পুরের মতো উদয়পুরেও পরিবর্তন প্রয়োজন৷

কাতারিয়া জানান, পুরনো জয়পুরে এক বিশেষ সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে মন্দিরে হিন্দুদের পুজো-অর্চনাতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে৷ এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “জয়পুরে কখনও গেলে দেখবেন আপনাদের মন্দিরে ভগবান কাঁদছে। মন্দিরে পুজো হয় না, ভগবানের সেবা হয় না। কারণ তিনি এমন স্থানে রয়েছেন যেখানে কখনও হাড় ফেলা হয় তো কখনও মাংসের টুকরো ছুঁড়ে ফেলা হয়৷”

একই সঙ্গে তিনি জনগণের কাছে আবেদন জানিয়ে বলেন, লাভ-জেহাদের হাত থেকে মেয়েদের বাঁচাতে হবে, এটাই হিন্দুদের মধ্যে এখন সব চেয়ে বড় সমস্যা৷ প্রসঙ্গত, উদয়পুরে ৯,৩০৭ ভোটে গিরিজা ব্যাসকে হারান কাতারিয়া৷

বিধানসভা নির্বাচনে মোট আটটি আসনের মধ্যে দু’টি আসনে জয়লাভ করতে সক্ষম হয় বিজেপি, বাকি ছ’টি-তে জেতে কংগ্রেস৷ ইতিমধ্যেই বিতর্কিত মন্তব্য করার জন্য কাতারিয়ার বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় তুলেছে বিরোধীরা৷ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য সাধনের জন্য বিজেপি ধর্মীয় বিভাজনকে হাতিয়ার করছে বলে তোপ দাগে কংগ্রেস৷

Shares

Comments are closed.