রবিবার, আগস্ট ১৮

আর্ট খায় না মাথায় দেয়, থিয়েটার প্রিভিউ: ‘আর্ট’

শমীক ঘোষ

মডার্ন আর্ট। বিদগ্ধ শিল্পরসিক ছাড়া যার কদর বোঝে না কেউ। সাধারণের কাছে দুর্বোধ্য, উদ্ভট। অনেক মাথা খুঁড়লেও যার মানে বোঝা যায় না। আবার সেই আর্টই বিক্রি হয় লক্ষ কোটি টাকায়।

মডার্ন আর্ট নিয়ে প্রচলিত আমজনতার এই মতামত নিয়েই কমেডি নাটক আর্ট। লিখেছিলেন প্রখ্যাত ফরাসী নাট্যকার ইয়াসমিনা রেজা। বিখ্যাত এই নাটকটি প্রথমবার মঞ্চস্থ হয় প্যারিসে। ১৯৯৪ সালে।

প্রবল প্রশংসিত এই নাটক এর পর ইংরাজিতে অনুবাদ করেন ক্রিস্টোফার হ্যাম্পটন। আর সেই অনুবাদ ১৯৯৬ সাল থেকে মঞ্চস্থ হয় লন্ডনে। ব্রডওয়েতেও।

এই নাটকই কলকাতার মঞ্চে মঞ্চস্ত করতে চলেছেন কলকাতার ‘প্র্যাক্সিস’ নাট্যসংস্থা।

নাটকের মূলে একটা আপাত সাদা ক্যানভাস। সেটাই নাকি বিখ্যাত শিল্পীর শ্রেষ্ঠ কীর্তি। প্রবল দামি। কারো চোখে সম্পূর্ণ সাদা। আবার কেউ কেউ তারই মধ্যে খুঁজে পায় নানা রঙের আভাস।

ঋষেল, মৈনাক আর অনুভব, তিন ঘনিষ্ঠ বন্ধুর নানা সংঘাতের মুহূর্ত তৈরি হয় এই ক্যানভাসকে ঘিরে। কেউ মানতে চায় না এটা শিল্প। কারো কাছে এটা মহার্ঘ্য একটা আর্ট। কেউ আবার দু’নৌকাতেই পা দিয়ে চলে।

নাটকের পরতে পরতে উঠে আসে আধুনিক মানুষের মন। একাকিত্ব। নিজেকে জাহির করতে চাওয়ার দুর্নিবার বাসনা। সব দিক বজায় রাখার সুবিধাবাদও। আভাগার্দ বুদ্ধিজীবির অন্তসারশূণ্যতাও।

আর্ট নয়। যেন সম্পর্কেরই গল্প এটা। আবার সম্পর্কের প্রেক্ষিতের বাইরে বেরোলে দেখা যায় আমাদের গোটা সময়ের অস্থিরতাকেও। বিরুদ্ধ মতকে সহ্য না করতে পারা প্রবল ঔদ্ধত্যও।

কিন্তু কোথাও চিৎকৃত নয় এই নাটক। বরং ভীষণ সহজের আড়ালেই কথা বলার বিভিন্ন পরত। এক ঘন্টা কুড়ি মিনিটের ওয়ান অ্যাক্ট এই নাটকে নেই কোনও নারীচরিত্র।

নাট্যনির্দেশক গৌতম সরকার এই নাটকটাকে মঞ্চস্থ করেন সেই মিনিমালিস্ট কায়দাতেই। অসম্ভব মিনিমালিস্ট হিরণ মিত্রের প্রোডাকশন ডিজাইনও।

নাটকে অভিনয় করছেন বাংলা থিয়েটার নামী অভিনেতা অনির্বাণ চক্রবর্তী ও সত্রাজিৎ সরকার। তৃতীয় চরিত্রে নাট্যনির্দেশক নিজেই। সবার অভিনয়ই নাটকের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে খুব স্তিমিত। কোথাও উচ্চগ্রামে ওঠে না। আবার অভিনয়ের গুনে টানটান আটকে রাখে দর্শকেও।

গোটা নাটকে আবহসঙ্গীত ব্যবহার হয়নি একবারও।

এই নাটকের পারফর্ম্যান্সেও রয়েছে অভিনবত্ব। আকাদেমি অফ ফাইন আর্টসের নর্থ গ্যালারিতে মে মাসের আট তারিখ থেকে হচ্ছে হিরণ মিত্রর চিত্রকলা প্রদর্শনী। এই নাটকের প্রথম অভিনয় হবে সেই গ্যালারির স্পেসেই। মে মাসের ১২ ও ১৩ তারিখে।

একই সঙ্গে থাকছে আউটার আর্ট নিয়ে বিশেষ এক আলোচনারও। সেই আলোচনায় লেখক, চিত্রকর, নাট্য ও চলচিত্র নির্দেশকদের পাশাপাশি অংশগ্রহণ করতে পারবেন সাধারণ দর্শকও।

প্রসেনিয়ামে এই নাটকের প্রথম অভিনয় মে মাসের ১৮ তারিখে। আকাদেমিতেই ।

Leave A Reply