মঙ্গলবার, নভেম্বর ১২

এই মন্দিরে ছেলেদের মেয়ে সেজে যেতে হয়, তবেই পুজো নেন ভগবতী দুর্গা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বৈচিত্রের দেশ ভারত। এ দেশে এমন অনেক মন্দিরই রয়েছে, যেখানে মহিলাদের প্রবেশ নিষিদ্ধ। তেমনই এক মন্দির রয়েছে যেখানে ছেলেরা যেতে পারে কিন্তু আগে নারী সাজতে হবে। সেটাও আবার যা হোক করে সাজলে হবে না।

কেরলের কোল্লাম শহরের কোট্টানকুলাঙ্গারা দেবীর মন্দির। এ মন্দিরে পূজিতা হন আদি শক্তির ভগবতী রূপ। কিন্তু, সব থেকে আশ্চর্যের বিষয়, এই মন্দিরে পুরুষ ভক্তরা আসেন মহিলাদের মতো শাড়ি-গয়না পরে। শুধু তাই নয়, রীতিমতো বড় চুলে খোঁপা করে। ফি বছর হাজারে হাজারে পুরুষ নারী সাজেই পুজো দিতে আসেন শাড়ি, গয়নায় সেজে।

কথিত আছে, এখন যেখানে মন্দির সেখানে এক সময়ে ছিল জঙ্গল। স্থানীয় রাখালরা তাদের গবাদি পশুদের এখানে চরাতে নিয়ে আসত। গরু-বাছুরদের চরাতে নিয়ে এসে নিজেরা খেলে বেড়াত জঙ্গলের মধ্যে। সেখানেই একটি বড় পাথর ছিল, যা ছিল রাখালদের সব থেকে প্রিয় খেলার বস্তু। রাখালরা নাকি নিজেদের পোশাক না পরে মেয়েদের জামা-কাপড় পরে খেলা করত এই জঙ্গলে।

এমনই এক দিন খেলার সময়ে সেই পাথর থেকে প্রকট হন স্বয়ং দেবী দুর্গা। খবর ছড়িয়ে পড়তে সময় লাগেনি। আর তার পর থেকেই এটা প্রচারিত হয়ে যায় যে, নারী-বেশী পুরুষরাই দেবীকে সতুষ্ট করতে পারবেন।

প্রসঙ্গত, সারা বছরই দেবী পূজিতা হন কেরলের এই মন্দিরে। তবে মার্চ মাসে বিশেষ পুজোর আয়োজন হয়। এবং তার শেষ দিনেই পুরুষরা আসেন নারীর বেশে। আর সে এক দেখার মতো বিষয় হয়ে ওঠে।

Comments are closed.