শনিবার, অক্টোবর ১৯

অনেক চমক বাকি, ‘দিদি রথ’ ঘুরতে পারে রাজ্যে, বলছে পিকের অতীত

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আর কোনও গোপনীয়তা নেই। এটা এখন স্পষ্ট যে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যের শাসক দল চলবে প্রশান্ত কিশোরের প্রেসক্রিপশন মেনে। যে ভাবে পিকে নির্বাচনী প্রচার চালিয়ে থাকেন, সেটা এই রাজ্যেও হবে ধরেই নেওয়া যায়। আর সেটা হলে এখনও অনেক চমক বাকি রয়েছে।

এখনও পর্যন্ত প্রকাশ্যে টিম পিকে যে কর্মসূচি এনেছেন তৃণমূলের হয়ে তার নাম– ‘দিদিকে বলো’। সেই কর্মসূচিতে ৩৬০ ডিগ্রি প্রচার শুরু হতে চলেছে। দলের নেতা মন্ত্রীদেরও এখন ‘দিদিকে বলো’ টি-শার্টি পরতে হচ্ছে। রাজ্যের সর্বত্রই ‘দিদিকে বলো’, ‘দিদিকে বলো’ রব উঠতে শুরু করেছে। পিকে যে ধরনের প্রচার করেন তাতে এই ‘দিদিকে বলো’ রবকে ঝড়ে পরিণত করাই হবে লক্ষ্য। আর তার পরে একের পর এক চমক আসবে। না, এখনও আন্দাজ করা কঠিন যে, ঠিক কী কী চমক দেখা যাবে। কারণ, প্রশান্ত কিশোরের অতীত রেকর্ড বলছে তিনি ও তাঁর সংস্থা কোন দল ও কোন রাজ্যে কাজ করছেন সেই অনুযায়ী হয় কর্মসূচি। তবে অতীতের কাজকর্ম থেকে একটা ধারণা অবশ্যই করা যায়।

নরেন্দ্র মোদী, নীতীশ কুমার, রাহুল গান্ধী, অমরিন্দর সিং, জগন্মোহন রেড্ডির হয়ে কাজের অভিজ্ঞতা নিয়ে এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরামর্শদাতা প্রশান্ত কুমার। অতীতে পিকে সব ক্ষেত্রেই বিভিন্ন নামে রাজনৈতিক যাত্রাকে গুরুত্ব দিয়েছেন। আর তার থেকে এটা ভাবাই যায় যে পশ্চিমবঙ্গেও তেমন কিছু হবেই। ইতিমধ্যেই তাঁর পরামর্শে ‘জনসংযোগ যাত্রা’ শুরু করেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে পিকে যে ভাবে কাজ করেছেন সেটায় নজর দিলেই বোঝা যায় কোন পথে চলে পিকের জনসংযোগ। মোদীর প্রচার শুরু হয় ‘ইয়ং ইন্ডিয়ান লিডার্স কনক্লেভ’ দিয়ে। এর পরে ‘মন্থন’, ‘আই-ভোট’, ‘শ্রেষ্ঠ ভারত’ ইত্যাদি নামে কর্মসূচি নেওয়া হয়। এর পরে হয় ‘রান ফর ইউনিটি’, ‘চায়ে পে চর্চা’ ও ‘মোদী আনেওয়ালা হ্যায়’ যাত্রা। একেবারে ভোটের মুখেমুখে এসে শুরু হয় ‘হর ঘর মোদী, ঘর ঘর মোদী’ প্রচার। আর নির্বাচনী প্রচার পর্বে ‘ভারত বিজয় যাত্রা’।

একই ভাবে নীতীশ কুমারের ক্ষেত্রে ‘হর ঘর দস্তক’, ‘নীতীশ কানেক্ট’, ‘স্বাভিমান যাত্রা’, ‘স্বাভিমান রথ’, ‘হর ঘর, হর মন’ যাত্রার আয়োজন করে টিম পিকে। কোটি কোটি টাকা খরচের সেই সব যাত্রার প্রতিটি খুঁটিনাটি আয়োজন করে প্রশান্ত কিশোরের সংস্থা।

পঞ্জাবে অমরিন্দর সিং, উত্তরপ্রদেশে রাহুল গান্ধী, অন্ধ্রপ্রদেশে জগন্মোহন রেড্ডির ক্ষেত্রেও নানা নামে একের পর এক যাত্রার আয়োজন করেছে পিকের সংস্থা আই-প্যাক। আর সেই ইতিহাসই বলছে এবার বাংলাও দেখতে চলেছে অনেক চমক। এমনকি ঘাসফুল তথা মমতা তথা তৃণমূলের নামে রথও বের হতে পারে।

Comments are closed.