শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৪

ম্যায় ভি যোগেশ রাজ, পলাতক বজরং দল নেতার হয়ে ব্যাপক প্রচার সোশ্যাল মিডিয়ায়

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গত সোমবার রাত থেকে নিখোঁজ বুলন্দশহরের বজরং দল নেতা যোগেশ রাজ। তাঁর হয়ে ব্যাপক প্রচার শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। প্রচারের নাম ‘আই অ্যাম যোগেশ’। ম্যায় ভি যোগেশ রাজ। যোগেশ রাজ নির্দোষ। তার জন্য ন্যায়বিচার চাই।

২৪ বছরের যোগেশের বিরুদ্ধে অভিযোগ, গত সোমবার বুলন্দশহরে গোহত্যার বিরুদ্ধে যে বিক্ষোভ হয়, তার নেতৃত্বে ছিলেন তিনি। প্রায় ৪০০ লোককে তিনি পুলিশ ফাঁড়িতে আক্রমণ করতে প্ররোচিত করেন। এমনকী ইনস্পেক্টর সুবোধ কুমার সিং-এর মৃত্যুর জন্য তিনিই দায়ী।

ওই ঘটনায় যে এফআইআর করা হয়েছে, তাতে প্রধান অভিযুক্ত হিসাবে আছে যোগেশের নাম। বুধবার গোপন আস্তানা থেকে তিনি ভিডিও বার্তা পাঠান। সেখানে তাঁর দাবি, হিংসাত্মক ঘটনার সময় আমি ছিলাম থানায়।

যোগেশের কথায়, সোমবার সকালে জানা যায়, মাহাউ গ্রামের কাছে কয়েকটি মৃত গরুর দেহ পড়ে আছে। আমি তখন অন্য গ্রামে ছিলাম। কয়েকজন বন্ধুর সঙ্গে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি, পুলিশও এসে উপস্থিত হয়েছে। আমরা উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করি। তারপর থানায় গোহত্যার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে গিয়েছিলাম। থানায় যখন বসে আছি, এমন সময় জানতে পারি, আবার গন্ডগোল হয়েছে। কিন্তু পুলিশ আমাকে প্রধান অভিযুক্ত বলে দেখিয়েছে।

বিজেপির স্থানীয় যুব শাখার সভাপতি শিখর আগরওয়াল ও বিশ্ব হিন্দু পরিষদের বুলন্দশহরের সভাপতি উপেন্দ্র রাঘবের নামও আছে এফআইআরে।

অমিত কুমার মাহুর নামে এক ব্যক্তি ফেসবুকে প্রোফাইল পিকচার আপডেট করে যোগেশের সঙ্গে তাঁর একটি ছবি দিয়েছেন। সেই সঙ্গে লিখেছেন, ম্যায় ভি যোগেশ রাজ, ভারত মাতা কি জয়! আমি যোগেশের পক্ষে। নিরীহ হিন্দুদের পক্ষে।

অমিত এই পোস্ট করার সঙ্গে সঙ্গে ২০০ টি লাইক পড়ে। বুলন্দশহর থেকে মনীশ ভরদ্বাজ বলেন, হম ইস ধরম যুধ মে যোগেশ রাজ আউর বজরং দল কে সাথ হ্যায়। অর্থাৎ, আমি ধর্মযুদ্ধে যোগেশ রাজ ও বজরং দলের সঙ্গে আছি।

যোগেশের জন্য ন্যায়বিচার চেয়ে যশপণ্ডিত বজরঙ্গি নামে এক ব্যক্তি লিখেছেন, ইয়া তো বিজেপি পুলিশ কো সুধার লে, নেহি তো হম হিন্দু বিজেপি কো সুধার দেঙ্গে। যোগেশ রাজ নির্দোষ হ্যায়। অর্থাৎ, হয় বিজেপি পুলিশকে সংশোধন করুক, নয়ত আমরা হিন্দুরা বিজেপিকে সংশোধন করে দেব।

এক পুলিশ অফিসার নাম গোপন রাখার শর্তে বলেন, যারা ওই পোস্টগুলি করছে, তাদের ওপরে আমরা নজর রাখছি। সেজন্য আমাদের সাইবার সেলকে কাজে লাগানো হচ্ছে। অন্যদিকে ভিএইচপি এবং বজরং দলের বিশিষ্ট নেতারা যোগেশ রাজের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছেন।

Shares

Comments are closed.