করোনার জেরে নদিয়ায় বন্ধ হল হাসপাতাল, কোচবিহারে পুর প্রশাসক ভর্তি হলেন হাসপাতালে

শান্তিপুর হাসপাতালের ১৬ জন চিকিৎসকের মধ্যে আগেই দুজনের শরীরে করোনার সংক্রমণ ধরা পড়ে। সোমবার আরও একজন ডাক্তারের শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। তারপরেই নড়েচড়ে বসে স্বাস্থ্যদফতর।

২০

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রাজ্যের উত্তর থেকে দক্ষিণ সর্বত্রই করোনা সংক্রমণের হার বাড়ছে হুহু করে। পরিস্থিতির জেরে রোগীদের সুরক্ষিত রাখতে অস্থায়ীভাবে হাসপাতাল পরিষেবা বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হল নদিয়ায়। শান্তিপুর হাসপাতালের ১৬ জন চিকিৎসকের মধ্যে আগেই দুজনের শরীরে করোনার সংক্রমণ ধরা পড়ে। সোমবার আরও একজন ডাক্তারের শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। তারপরেই নড়েচড়ে বসে স্বাস্থ্যদফতর। দফতরের কর্তাদের সঙ্গে কথা বলে শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালের সুপার জয়ন্ত বিশ্বাস আপাতত সমস্ত রোগী পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিলেন।

তিনি বলেন, ‘‘ডাক্তারবাবুদের মাধ্যমে রোগীদের সংক্রমণ অত্যন্ত বেদনাদায়ক। বাধ্য হয়েই বহির্বিভাগ বন্ধ রাখা হয়েছে।  আপাতত জেলার অন্যান্য হাসপাতালগুলিতে পরিষেবা পেতে পারেন রোগীরা।’’

এদিকে কোচবিহারেও করোনা সংক্রমণ বাড়ায় উদ্বিগ্ন জেলা প্রশাসন। সোমবার নতুন করে ১৮ জনের দেহে করোনা সংক্রমণ হয়। আজ মঙ্গলবার সকালেই আরও পাঁচ জনের শরীরে মিলল করোনার জীবাণু।

সরকারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী সোমবার ২১ জন পজেটিভ থেকে নেগেটিভ হয়েছেন। এই মুহূর্তে কোচবিহারে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৫২। জেলায় বর্তমানে ১১ টি কন্টেইনমেন্ট জোন করা হয়েছে। কোচবিহারের পুর প্রশাসক ভূষণ সিং সহ ১০ জনের বেশি সরকারি আধিকারিক করোনা পজেটিভ হয়ে সেফ হোম রয়েছেন। এঁদের মধ্যে একজনের দ্বিতীয় বারের ট্রুনাট টেস্টে নেগেটিভ রিপোর্ট এসেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। নিশ্চিত হওয়ার জন্য নতুন করে তার লালারস পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।

আক্রান্ত আধিকারিকদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন রাজ্যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত বৃহস্পতিবার কোচবিহারে নতুন করে আটজনের শরীরে মেলে করোনার জীবাণু। এঁদের মধ্যে পাঁচজন কোচবিহার সদরের বাসিন্দা। এই পাঁচ জনই ডব্লিউবিসিএস পদমর্যাদার সরকারি আধিকারিক। করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে এই পাঁচজন প্রত্যক্ষ ভাবে লড়াইতে ছিলেন বলে খবর। এতজন সকতারি আধিকারিকের একসঙ্গে করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়তেই চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয় গোটা শহরজুড়ে। খবর জানাজানি হতেই জেলাশাসকের দফতর-সহ একাধিক দফতর স্যানিটাইজ করার কাজ শুরু হয়।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More