রবিবার, জানুয়ারি ১৯
TheWall
TheWall

গরমের ছুটি এগিয়ে এল রাজ্যে, ফণীর আতঙ্কে জরুরি সিদ্ধান্ত নবান্নের

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ধেয়ে আসছে ফণী৷ বড় প্রভাব না পড়লেও রাজ্যে ভয় বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে শুক্রবার থেকেই স্কুল বন্ধ থাকবে। স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে, ফণীর জেরে এগিয়ে আনা হল গরমের ছুটি৷ বন্ধ রাজ্যের সমস্ত সরকারি, সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুল৷ বেসরাকির স্কুলে এখনও পর্যন্ত কোনও নির্দেশ পাঠানো হয়নি।

আবহাওয়া দফতর বলছ, ক্রমশ শক্তি বাড়িয়ে ধেয়ে আসছে ঘুর্ণিঝড় ফণী। ইতিমধ্যে পশ্চিমবঙ্গ ও ওড়িশায় হাই-অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। বিশেষ করে কলকাতা-সহ উপকূলবর্তী এলাকায় বাড়তি সতর্কতা নেওয়া হচ্ছে প্রশাসনের তরফে। ইতিমধ্যে কলকাতা পুরসভায় কন্ট্রোল রুম খোলা রয়েছে। যে কোনও পরস্থিতির জন্যে কর্মীদের ঝাঁপিয়ে পড়ারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে নবান্নের তরফে। মঙ্গলবার এই বিষয়ে আগাম সতর্কতা হিসাবে একটি জরুরি বৈঠক হয়ে গিয়েছে নবান্নে। সাইক্লোন আছড়ে পড়ার কীভাবে তা মোকাবিলা করা সম্ভব তা নিয়েই মূলত আলোচনা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এরই মধ্যে গরমের ছুটি এগিয়ে আনা হল।

শুক্রবার ৩ মে থেকে পড়ছে গরমের ছুটি। স্কুল খুলবে ৩০ জুন। বেশির ভাগ স্কুলেই গরমের ছুটি শুরু হওয়ার কথা ছিল মে মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে। খোলার কথা ছিল জুন তৃতীয় সপ্তাহ নাগাদ। সরকারি ও সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুলগুলিতে মোটামুটি ৩০ দিনের গরমের ছুটি ছিল। নতুন নির্দেশে সেটাই হয়ে গেল প্রায় দু’মাসের অবকাশ।

অতীতে অতিরিক্ত গরম পড়লে গ্রীষ্মাবকাশ বাড়ানোর নজির রয়েছে রাজ্যে। কিন্তু কোনও ক্ষেত্রেই এতটা বেশি দিনের ছুটি হয়নি। শুধু সরকারি বা সরকার নিয়ন্ত্রিত স্কুলেই নয়, গরমের ছুটি বাড়ানোর জন্য সিবিএসই এবং আইসিএসই কর্তৃপক্ষকেও ছুটি বাড়ানোর চিঠি পাঠিয়েছে নবান্ন।

Share.

Comments are closed.