শুক্রবার, নভেম্বর ১৫

বুলবুল আশঙ্কায় ছুটি, কাল বন্ধ থাকবে সাত জেলার সব স্কুল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: শনিবার রাজ্য ঘূর্ণঝড় আছড়ে পড়ার পূর্বাভাস দিয়েছে আবাহওয়া দফতর। এই ঝড়ের জেরে ভারী বৃষ্টি ছাড়াও ঝোড়ো হাওয়া চলবে। বিপুল ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কাও রয়েছে রাজ্যে। এই পরিস্থিতিতে কলকাতা-সহ সাত জেলায় শনিবার সব স্কুল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত জানাল স্কুল শিক্ষা দফতর। আগেই প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ এই ঘোষণা করেছিল। পরে অন্যান্য স্তরের স্কুলও বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের সাত জেলায় শনিবার সব স্কুলে ছুটি ঘোষণা করল রাজ্য সরকার। দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, হাওড়া ও কলকাতায় শনিবার সব প্রাথমিক স্কুল ছুটি থাকবে। ইতিমধ্যেই জেলায় জেলায় এই নির্দেশ পাঠিয়েও দিয়েছে দফতর।

প্রথম থেকেই বুলবুলের গতিপথ নিয়ে বেশ খানিকটা ধন্দে রয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস, শুক্রবার বিকেল থেকেই রাজ্যে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে। হাওয়ার গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৬০ কিলোমিটার। আগামিকাল সকালে দিক পরিবর্তন করে ঘূর্ণিঝড় কিছুটা শক্তি ক্ষয় করে ৯০ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়তে পারে উপকূলে।

পশ্চিমবঙ্গের সাগরদ্বীপ থেকে বাংলাদেশের খেপুপাড়ার মাঝে স্থলভাগের প্রবেশ করবে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। আজই শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় থেকে অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে বুলবুল।

শুক্রবার রাত থেকে বৃষ্টি শুরু হবে দুই ২৪ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুরে। শনিবার ও রবিবার ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলিতে।

দিঘা-সহ উপকূলের সমস্ত এলাকাগুলিতেই সকাল থেকে মেঘলা আকাশ। ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্টসিভিল ডিফেন্স এর লোকজন দিঘা সহ উপকূলে সতর্কতামূলক টহল দিচ্ছে। বৃহস্পতিবার বিকেল থেকেই মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে প্রশাসন। এই মহুর্তে পর্যটকদের জন্য ফিরে যাওয়ার কোন সতর্ক বার্তা নেই। আবহাওয়া এখনও পর্যন্ত স্বাভাবিক রয়েছে। কোনও গুজব যাতে না ছড়ায় তারজন্য মাইকে প্রচার চলছে দিঘাশঙ্করপুরমন্দারমণিতে।

আন্দামান সাগর লাগোয়া পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরে ঘনীভূত হওয়া নিম্নচাপ ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়ের চেহারা নিচ্ছে।বসিরহাট, সন্দেশখালিহিঙ্গলগঞ্জে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিচ্ছে প্রশাসন। দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার উপকূলবর্তী এলাকাতেও জারি হয়েছে সতর্কতা।

Comments are closed.