মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১৭

পাকিস্তানকে কড়া জবাব শ্রীলঙ্কার ক্রীড়ামন্ত্রীর, পাক সফরে মালিঙ্গাদের ‘না’-এ ভারতের কোনও হাত নেই

দ্য ওয়াল ব্যুরো: চলতি মাসের শেষে পাকিস্তান সফরে যাবেন না বলে দেশের সর্বোচ্চ ক্রিকেট নিয়ামক সংস্থাকে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার ১০ ক্রিকেটার। তারপর পাকিস্তানের মন্ত্রী ফাওয়াদ হুসেন চৌধুরী বলেন, ভারতের চাপেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। কিন্তু বুধবার শ্রীলঙ্কার ক্রীড়ামন্ত্রী হারিন ফার্নান্দো জানিয়ে দিলেন, এ ব্যাপারে ভারতের চাপের কোনও প্রশ্নই নেই।

টুইট করে শ্রীলঙ্কার ক্রীড়ামন্ত্রী লেখেন, “আমরা খেলোয়াড়দের ডেকেছিলাম। জানতে চেয়েছিলাম, কারা যেতে চান। দশজন পাকিস্তান যেতে রাজি হননি।” তিনি এ-ও জানান, যাঁরা রাজি হননি, তাঁরা প্রত্যেকেই ২০০৯-এর পাকিস্তান সফরে শ্রীলঙ্কার টিম বাসে জঙ্গি হামলার উদাহরণ দিয়েছেন। সে বার কোনও ক্রমে প্রাণে বেঁচেছিলেন কুমার সাঙ্গাকারারা।

পাক মন্ত্রীর জবাবে মঙ্গলবারই বিসিসিআই-এর তরফে কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছিলেন রাজীব শুক্ল। এ দিন মুখ খুললেন শ্রীলঙ্কার মন্ত্রীও।

২৭ সেপ্টেম্বর থেকে ৯ অক্টোবর পর্যন্ত তিনটি একদিনের ম্যাচ ও তিনটি টি ২০ ম্যাচের সিরিজ হওয়ার কথা শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানের। তার আগে সোমবার ক্রিকেটারদের সঙ্গে বৈঠক করে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড। এই বৈঠকের উদ্দেশ্যই ছিল এই সফরে যাওয়ার ব্যাপারে ক্রিকেটারদের মতামত জানা। সেখানেই ১০ ক্রিকেটার যাবেন না বলে জানান। তাঁরা হলেন, লাসিথ মালিঙ্গা, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ, থিসারা পেরেরা, নিরোশন ডিকওয়েলা, কুশল পেরেরা, ধনঞ্জয় ডি সিলভা, আকিলা ধনঞ্জয়, সুরঙ্গা লাকমল, দীনেশ চান্ডিমাল ও দিমুথ করুণারত্নে।

বোর্ডের ওয়েবসাইটে জানানো হয়, “শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড দলের সব ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা বলেছে। এই বৈঠক ডাকা হয়েছিল পাকিস্তান সফরে ক্রিকেটারদের জন্য কী ধরণের সুরক্ষার বন্দোবস্ত রয়েছে তা জানানোর জন্য। তাছাড়া এই সফরে কারা যেতে চান বা চান না সে ব্যাপারেও জানতে চাওয়া হয়। সেখানেই ১০ ক্রিকেটার জানান, তাঁরা যেতে চান না। তাঁদের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাচ্ছি আমরা। তাঁদের বাদ দিয়েই দল ঘোষণা করা হবে।”

এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন এয়ার চিফ মার্শাল রোশন গুনেতিলকা। তিনি বর্তমানে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নিরাপত্তা উপদেষ্টা। তিনিই ক্রিকেটারদের কাছে পাকিস্তানে সুরক্ষার কী কী বন্দোবস্ত আছে, তা বুঝিয়ে বলেন। নির্বাচক কমিটির প্রধান আসান্থা দে মাল জানিয়েছেন, প্রথমেই বলা হয়েছিল পাকিস্তান যেতে চান কিনা, তা ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। যাঁরা যাবেন, তাঁদের নিয়ে একদিনের ও টি ২০ দল শিগগির ঘোষণা করা হবে।

Comments are closed.