Latest News

‘এই সাতবছরে যা শিখেছ, তা দেখে তোমার মেয়েও শিখবে’, বিরাট সিদ্ধান্তে বার্তা অনুষ্কার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিরাট কোহলির যাবতীয় সিদ্ধান্তকে সহজভাবে নিয়েছেন স্ত্রী অনুষ্কা শর্মা। তিনি বরাবরই কোহলির প্রতি আবেগাপ্লুত থাকেন, এবারও টেস্টের নেতৃত্ব ছাড়ার পরে তার অন্যথা ঘটেনি।

কোহলির সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়ে অনুষ্কা লিখেছেন, ‘‘তুমি অভিনয় করতে পার না। এই গুণটাই তোমাকে আমার চোখে মহান করে তুলেছে। কারণ সবাই তোমার সৎ ইচ্ছেকে দেখতে পায়, কিন্তু সবাই সেটা বুঝতে পারে না। তারা সত্যিই ভাগ্যবান যারা তোমার চোখের গভীরে তোমার মনটা দেখতে পায়। তোমার মধ্যেও অনেক ত্রুটি রয়েছে, কিন্তু তুমি কোনও দিন সেগুলো ঢাকার চেষ্টা করোনি, সব সময় সত্যের পাশে দাঁড়িয়েছ। এটাই তুমি, আসল তুমি।’’

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ হারের পরেরদিনই আচমকা টেস্ট অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন কোহলি। সেই নিয়ে প্রাক্তন ভারত অধিনায়কের সহধর্মিনীর ব্যাখ্যা,  ‘‘আমি এও দেখেছি তুমি কাঁদছ, তোমার চোখে জল দেখেছি আমি। তুমি কোনও দিন পদের মোহ করোনি, সেই নিয়ে লোভ নেই তোমার। কারণ কেউ যখন কোনও কিছুকে খুব জোরে চেপে ধরে থাকতে চায় তখন সে নিজেকে সীমিত করে ফেলে। কিন্তু তুমি তো অসীম। এই সাত বছরে তুমি যা শিখেছ তা তোমার কাছ থেকে আমাদের মেয়েও শিখবে।’’

ধোনির হাত থেকে ক্যাপ্টেন আর্মব্যান্ড নেওয়ার অভিজ্ঞতার কথাও জানিয়েছেন নামী বলিউড অভিনেত্রী। অনুষ্কা নিজের সেই আবেগমুখর বার্তায় লিখেছেন,  ‘‘আমার ২০১৪ সালের সেই দিনের কথা মনে পড়ে যে দিন তুমি এসে বলেছিলে যে ধোনি অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়ায় তোমাকে টেস্টের অধিনায়ক করা হয়েছে। আমার মনে আছে সে দিনই আমি, তুমি ও ধোনি বসে গল্প করছিলাম, যখন ধোনি মজা করে বলছিল কত দ্রুত তোমার দাড়ি পাকতে শুরু করবে। সে দিন থেকে আমি তোমার দাড়ি পাকতেই শুধু দেখিনি, মানুষ হিসাবে তোমার উন্নতি দেখেছি। ভারতের অধিনায়ক হিসাবে তোমার উন্নতি দেখে আমি সত্যিই গর্বিত। অনেক সাফল্য এনে দিয়েছ দেশকে, তবে এই সময়ে তোমার ভেতরের উন্নতি দেখে আমি আরও গর্বিত।’’

রবিবার ফেসবুকে অনুষ্কা লিখেছেন, ‘‘২০১৪ সালে যখন ধোনি তোমার হাতে টেস্ট নেতৃত্ব তুলে দিয়েছিল, সেইসময়গুলো কত সাধারণ ছিল। এটাই ভেবে এসেছি, ভাল অভিপ্রায়, ইতিবাচক পদক্ষেপ জীবনকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। সেগুলি অবশ্যই ঠিক, তবে তাতে বারবার চ্যালেঞ্জের মুখেও পড়তে হয়। তুমি ওসব চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছ, তা সর্বদা মাঠের ভিতরে নয়। কিন্তু এটাই তো জীবন,  তাই নয়? জীবন সেখানে আপনার পরীক্ষা নেয়, যেখানে পরীক্ষা দিতে বলে তেমন আশাও করেননি। কিন্তু সেখানেই তোমায় সবথেকে বড় পরীক্ষার মুখে পড়তে হয়। মাই লাভ, তোমার জন্য আমি গর্বিত,  কারণ কোনও বিষয়কে তোমার ভাল অভিপ্রায়ের ক্ষেত্রে বাধা হয়ে উঠতে দাওনি।’’

 

 

You might also like