Latest News

ফেয়ারওয়েল টেস্টের প্রস্তাবে রাজি হননি বিরাট, কপিল বলছেন, ছাড়তে হবে ইগো

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিরাট কোহলির টেস্ট অধিনায়কত্ব থেকে সরে যাওয়ার ঘটনা ভারতীয় ক্রিকেটে দারুণ প্রভাব ফেলেছে। সাতবছর দলের অধিনায়ক ছিলেন, যা সাফল্য পেয়েছেন, সেটি পূর্বসূরীরা কেউই পাননি। সেই কারণে কোহলির প্রতি আবেগ রয়েছে সমর্থকদের মধ্যে।

তার মধ্যে সোমবার শোনা গিয়েছে, কোহলি যাতে সম্মান নিয়ে অধিনায়ক পদ থেকে সরতে পারেন, তার ব্যবস্থা করেছিলেন বিসিসিআই কর্তারা। কিন্তু কোহলি তাতে রাজি হননি।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাঠে বেঙ্গালুরুতেই কোহলি খেলতে চলেছিলেন সেঞ্চুরি টেস্ট। সেই টেস্টই তাঁর অধিনায়ক হিসেবে শেষ টেস্ট হতে পারত, কিন্তু তিনি ওই আড়ম্বর চাননি। সেইজন্যই কোহলি আরও বেশি সম্মান পাচ্ছেন তামাম অনুরাগীদের থেকে।

বোর্ডের ওই প্রস্তাব শুনে বিরাট বলেছিলেন, ‘‘ওই একটা টেস্টের জন্য আমার তরফে ব্যাপক কিছু বদল ঘটবে না। আমি এখনই সরে যাব অধিনায়ক পদ থেকে।’’ তারপরেই এমন কঠিন সিদ্ধান্ত নেন। কোহলি মনে করেন, তিনি আরও দেশের হয়ে খেলে গৌরবের মুক্তো নিয়ে আসবেন।

এদিকে, কোহলিকে নিজের ইগো ছাড়তে বলেছেন বিশ্বকাপজয়ী ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক কপিলদেব। তিনি বলেছেন, ‘‘কোনও জুনিয়র ক্রিকেটারের অধীনে খেলতে হলে আগে কোহলিকে ইগো ত্যাগ করতে হবে। তা হলেই সেরা ফর্মের কোহলিকে আমরা আবার পাব।’’

মুম্বইয়ের এক নামী ট্যাবলয়েডকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কপিল আরও বলেছেন, ‘‘বিরাটের টেস্ট অধিনায়কত্ব ছাড়ার সিদ্ধান্তকে আমি স্বাগত জানাচ্ছি। টি-২০ ক্যাপ্টেনসি ছাড়ার পর থেকেই দেখছি বিরাট কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি ওকে দেখে মনে হয়েছে যে, রীতিমতো টেনশনে আছে, বোঝাই যাচ্ছিল প্রচুর চাপে রয়েছে। বিরাট মানুষ হিসেবে যথেষ্ট পরিণত। আমি নিশ্চিত যে, অনেক ভেবেই এই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। হয়তো আর অধিনায়কত্ব উপভোগ করছিল না।’’

তিনি বিরাটকে অনুরোধের সুরেই জানিয়েছেন। ‘‘জুনিয়রদের অধিনে খেলতে হলে সমস্যা হওয়ার কথা নয়। আমিও তো শ্রীকান্ত, আজহারউদ্দিনের নেতৃত্বে খেলেছি। আমার অধিনায়কত্বে খেলেছেন সুনীল গাভাসকার। ইগো রাখলে চলবে না, তাতে নিজের ক্ষতি হবে।’’ বলেছেন ‘হরিয়ানা হ্যারিকেন’।

 

 

 

 

 

 

You might also like