Latest News

‘তোমাদের ক্রিকেটাররা কত ভাল, জানা আছে!’ পাকিস্তানি ট্রোলিংয়ের জবাব ভাজ্জির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: টি ২০ বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ভারতের (india) শুরুটা ভাল হয়নি। প্রথমে পাকিস্তান (pakistan) , পরে নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে বিরাট-বাহিনীর টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যাওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছিল। যদিও পরের দুটি ম্যাচে যথাক্রমে আফগানিস্তানকে ৮ উইকেটে ও স্কটল্যান্ডকে বিধ্বস্ত করে জয়ের রাস্তায় ফেরে ভারতীয় টিম। কিন্তু তারপরই শুরু হয় পাকিস্তানিদের ট্রোলিং (trolling)। সীমান্তের ওপার থেকে সোস্য়াল মিডিয়ায় প্রচার শুরু হয়ে যায়, আফগানিস্তানের সঙ্গে ম্যাচ গড়াপেটা (match fixing) হয়েছে। বিসিসিআই (bcci)কলকাঠি নেড়েছে। এতে তীব্র প্রতিক্রিয়া হয়। ভারতের জিতলেই কেন তার পিছনে ফিক্সিংয়ের তত্ত্ব, প্রশ্ন ওঠে। হরভজন সিং (harbhajan) ট্যুইট করে ম্যাচ গড়াপেটার অভিযোগের পাল্টা পাক ফ্যানদের একহাত নেন।

 

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ভাজ্জি পাকিস্তানিদের আচরণকে ‘ননসেন্স ট্রেন্ড’ (nonsense trend) তকমা দিয়ে বলেন, পাকিস্তান তাদের চারটে ম্যাচেই দারুণ খেলে প্রথম টিম হিসাবে সেমিফাইনালে পৌঁছেছে, স্বীকার করছি। পাকিস্তানিরা ভাল ক্রিকেট খেলেছে, প্রত্যেকেই চমত্কার খেলে ভারতকে হারানোয় তাদের প্রশংসা করছে। সেজন্য ওদের অভিনন্দন। কিন্তু যদি তোমরা ভাল ক্রিকেট খেলো, আর আমরা জিতলেই সন্দেহ প্রকাশ করে বলো  ম্যাচ ফিক্সিং হয়েছে, খারাপ ব্যবহার করো, তবে সেটা অন্যায়। তোমাদের ক্রিকেটারদের নাম, খ্যাতি, কতদূর, সেটা আমরাও জানি। পাকিস্তানেরও অনেক ক্রিকেটারের নাম জানি যারা নিজেদের সম্মান (reputation)ধুলোয়  মিশিয়েছে। ২০১২র লর্ডস টেস্টে স্পট ফিক্সিংয়ে দোষী সাব্যস্ত, নির্বাসিত মহম্মদ আমিরের উল্লেখ করেন হরভজন।

পাক সমর্থকদের সম্পর্কে ভাজ্জি আরও বলেন, ওরা বোধহয় বিশ্বকাপে এতগুলো বছর অপেক্ষা  করে থাকার পর ভারতের বিরুদ্ধে পাওয়া প্রথম জয়টা হজম করতে পারছে না। কথা বলার, প্রশ্ন করার একটা রীতি আছে। কিন্তু ওরা আমাদের, রশিদ খানের বিরুদ্ধে মারাত্মক অভিযোগ তুলছে, যেগুলি সত্যিই সস্তা, সম্মানহানিকর।

 

 

You might also like