Latest News

বিতাড়িত কোচ রামনের কড়া চিঠি সৌরভ ও দ্রাবিড়কে, নয়া বিতর্ক ভারতীয় ক্রিকেটে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভারতীয় ক্রিকেটে নয়া বিতর্ক।

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও রাহুল দ্রাবিড়ের কাছে চিঠি পাঠালেন ভারতের মহিলা দলের প্রাক্তন কোচ উরকেরি রামন। একদিন আগেই তাঁর জায়গায় ভারতীয় মহিলা দলের কোচ করে নিয়ে আসা হয়েছে রমেশ পাওয়ারকে। ২৪ ঘন্টা কাটতে না কাটতেই এমন বিতর্ক ধেয়ে আসবে ভাবা যায়নি।

আর তারপরেই বিসিসিআই-এর সভাপতির কাছে ই-মেল করলেন রামন। সেই চিঠি ফরোয়ার্ড করলেন রাহুল দ্রাবিড়ের কাছেও। কারণ রামন বিশ্বাস করেন ভারতীয় মহিলা দলকে উন্নতির শিখরে পৌঁছনোর রোড ম্যাপটা দ্রাবিড়ের হাত ধরেই হয়েছিল। তিনি নিজের চিঠিতে কারোর নাম উল্লেখ না করেই ভারতীয় দলে চলতে থাকা ‘প্রিমা ডোন্না কালচার’র কথা তোলেন।

তিনি এর বিশদে ব্যাখ্যাও দিয়েছেন। রামন অভিযোগ করেছেন, এই দলে ভীষণরকমের তারকা প্রথা চলে, সিনিয়রদের এতটাই গুরুত্ব দেওয়া হয় যে জুনিয়ররা কিছু বলতে সাহস পায় না। সেই জন্য মেয়েদের দল বাইশ গজে নিজেদের মেলে ধরতে পারছে না। চিঠিতে নাকি বেশ কিছু সিনিয়র ক্রিকেটারের দিকে আঙুল তুলেছেন রামন।

তাঁর সময় দল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছিল। তবে বোর্ডের ভেতরে অনেকে মনে করেন রমেশ পাওয়ারের জন্যই দল যাবতীয় সাফল্য পেয়েছে। তাই রামন বিদায়ে বিসিসিআই-এর একাংশ মোটেও অবাক নন। দলের কোনও ক্রিকেটারের নাম না নিলেও রামন চিঠিতে লিখেছেন, ‘‘তিনি সব সময় দলকেই ইউনিট হিসেবে খেলাতে চান। কিন্তু এই দলে সেটা সম্ভব হয়নি কিছুূ তারকার জন্য।’’

আরও শোনা যাচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দল নির্বাচন নিয়ে নাকি রামন এবং দল নির্বাচন কমিটির প্রধান নীতু ডেভিডের মনোমালিন্য হয়েছিল। শেফালি বর্মাকে একদিনের সিরিজে দলে নেওয়া হয়নি। শিখা পান্ডেকে আচমকাই বাদ দেওয়া হয়। সেটা নিয়ে রামনের সঙ্গে নির্বাচন কমিটির দূরত্ব তৈরি হয়েছিল।

এও বলা হচ্ছে, মদনলাল ও সুলক্ষণা নায়েক মিলেই সরিয়েছেন রামনকে, নিয়ে এসেছেন পাওয়ারকে।

 

You might also like