Latest News

‘সাফল্য পাওয়ার পরে গুলিও খেয়েছি’, গ্রেগ চ্যাপেল জমানার প্রসঙ্গ টেনে বললেন সৌরভ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তাঁকে বহুবার এই প্রশ্নের সামনে পড়তে হয়েছে, একাধিকবার। তিনি সরাসরি কিছু বলেননি, বারবার একটা কথাই বলেছেন, গ্রেগ চ্যাপেল জমানা আমি ভুলে যেতে চাই।

একবার সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে এও বলা হয়েছিল, ধরুণ, আপনার ৮ জুলাই জন্মদিনে গ্রেগ অস্ট্রেলিয়া থেকে ক্যুরিয়রে আপনার জন্য কোনও উপহার পাঠালেন, আপনি গ্রহণ করবেন? তিনি যেহেতু বাস্তবের মাটি ধরে হাঁটেন, তাই বলেছিলেন, ‘‘হ্যাঁ, কেন নয়? যে লোকটা ভুল স্বীকার করে নিজে অনুতপ্ত হয়ে যদি কোনও উপহারও পাঠান, তা হলে নিতে ক্ষতি কোথায়?’’

ওই টুকুই, তারপর এমন কোনও তোপ তিনি দাগেননি, যা নিয়ে অহেতুক বিতর্ক হতে পারে। ফের আরও একবার এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে গ্রেগ জমানার প্রসঙ্গ টানলেন মহারাজ। ভারতের প্রাক্তন অন্যতম সেরা অধিনায়ক জানিয়েছেন, “জীবনে কোনও কিছুর নিশ্চয়তা নেই। সাফল্য পেলে গুলি খাওয়ার জন্যও তৈরি থাকতে হবে। আমিও তা খেয়েছি, ফিরেও এসেছি। সবাইকে চাপ নিয়ে কাজ করতে হয়। কিন্তু চাপকে দূরে সরিয়ে রেখে সাফল্যের সঙ্গে কাজ করতে পারাটাই দক্ষতার পরিচয়। এটা শুধু ক্রিকেট নয়। সমাজের যে কোনও স্তরের জন্য এটা মানানসই।’’

সৌরভ যখন দলকে সাফল্য এনে দিচ্ছেন, ঠিক সেই সময়ে দুম করে তাঁকে বসিয়ে দেওয়া হয়েছিল। কোনও মানসিক প্রস্তুতি ছাড়াই। অথচ ভারতীয় দলের সাফল্য পাওয়ার ভিত শক্ত হাতে গড়ে দিয়েছিলেন তিনিই।

সেই ২০০৫ সালের কথা। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে অধিনায়কের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। সেই যন্ত্রণা এখনও বোধহয় সৌরভের মনে টাটকা। সেই জন্যই বলেছেন, জীবনে সবকিছুর জন্য মানসিক প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে হবে।

সৌরভ এই কারণেই জানিয়েছেন, ‘‘তুমি খেলাধূলার সঙ্গেই যুক্ত থাক, বা ব্যবসা করো অথবা অন্য যা কিছু করো, জীবনের কোনও নিশ্চয়তা নেই। জীবনে ওঠা নামা থাকবেই। দাঁতে দাঁত চেপে শুধু লড়াই করে যেতে হবে। সকলের জীবনেই অসম্ভব চাপ রয়েছে। সেই চাপটা হয়তো আলাদা আলাদা রকমের।’’

You might also like