Latest News

সিডনিতে বাড়ছে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা, ভারত-অস্ট্রেলিয়া টেস্ট ঘিরে ধোঁয়াশা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনা সংক্রমণের জন্য বেশ কয়েক মাস ক্রিকেট বন্ধ থাকার পরে যে দেশগুলিতে প্রথম খেলা শুরু হয়েছে তার মাঝে অন্যতম হল অস্ট্রেলিয়া। ইংল্যান্ড বা দুবাইয়ে খেলা শুরু হলেও মাঠে দর্শক ঢোকার অনুমতি নেই। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ায় মাঠে নির্দিষ্ট সংখ্যায় দর্শক থাকার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এর মধ্যেই এবার সিডনিতে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে। আর তারপরেই সিডনিতে তৃতীয় টেস্ট ঘিরে ধোঁয়াশা দেখা দিয়েছে।

সিডনিতে চোট থেকে রিহ্যাবে ছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। কিন্তু অনেক আগেই তিনি মেলবোর্নে চলে গিয়েছেন। সেখানেই বক্সিং ডে টেস্ট খেলতে নামবে দুই দল। সিডনিতে সংক্রমণ বাড়তে থাকায় সীমান্ত বন্ধ করে দেওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। তাই আগে থেকেই মেলবোর্নে চলে গিয়েছেন তিনি। অ্যাডিলেডে ধারাভাষ্যকার হিসেবে থাকা ব্রেট লি, ব্র্যাড হ্যাডিন, গেভিন রবার্টসন, ম্যাট হোয়াইট ইতিমধ্যেই সিডনিতে ফিরে গিয়েছেন। গত তিন সপ্তাহে কেউ সিডনির নর্দার্ন বিচ এলাকায় গিয়েছেন কিনা সে ব্যাপারে খতিয়ে দেখছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

সিডনির নর্দার্ন বিচে এই মুহূর্তে ২৮ জন আক্রান্তের খবর পাওয়া গিয়েছে। নিউ সাউথ ওয়েলস প্রশাসন অবশ্য সংক্রমণের উৎস খঁজে বের করতে সফল হয়েছে। কিন্তু তারপরেও কোনও ঝুঁকি নিতে চাইছে না তারা। ইতিমধ্যেই ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকে সেই কথা জানিয়েছে তারা।

জানা গিয়েছে, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ইতিমধ্যেই মেলবোর্ন ক্রিকেট ক্লাবকে জানিয়েছে পরপর দুটি টেস্ট আয়োজন করার প্রস্তুতি তাদের রয়েছে কিনা। কারণ যদি সিডনিতে টেস্ট সম্ভব না হয় তাহলে মেলবোর্নেই হয়তো পরপর দুটি টেস্ট করার পরিকল্পনা করছে তারা।

যদিও এখনই কোনও সিদ্ধান্ত নিতে চাইছে না ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। কারণ বায়ো বাবলের মধ্যেই সব খেলা চলছে। সুতরাং প্লেয়ারদের সুরক্ষার দিকে যথাযথ নজর দেওয়া হয়েছে। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার অন্তর্বর্তী চিফ এগজিকিউটিভ নিক হকলে জানিয়েছেন, “অনেক আলোচনা চলছে। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেওয়া হচ্ছে। কিন্তু এই কারণেই বায়ো বাবলের মধ্যে আমরা ক্রিকেটারদের রেখেছি। আমরা পরিস্থিতির দিকে লক্ষ্য রাখছি। ভয় পাওয়ার কিছু হয়নি। অ্যাডিলেডেও কিছুদিন আগে এক পিজা দোকানে সংক্রমণ ছড়িয়েছিল। কিন্তু তা নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হয়েছিল প্রশাসন।”

অবশ্য ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া বাইরে যাই বলুক, ইতিমধ্যেই যেভাবে তারা মেলবোর্ন ক্রিকেট ক্লাবের সঙ্গে কথা বলেছে কিংবা সিডনির সীমান্ত বন্ধ করে দেওয়ার যে কথা চলছে তার থেকে এটা পরিষ্কার সিডনিতে টেস্ট ম্যাচ বাতিল করারও সম্ভাবনা রয়েছে।

You might also like