Latest News

‘করোনা হয়েছে তো সারা বিশ্বকে জানানোর কি আছে?’ শচীনকে বিতর্কের টুইট কেপি-র, পালটা দিলেন যুবিও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: শচীন তেন্ডুলকারের একটি টুইট ঘিরে এমন বিতর্ক হতে পারে কেই বা ভেবেছিল। শচীন শনিবার সকালে নিজেই টুইট করে জানান তিনি কোভিড পজিটিভ। মাস্টারের যে মৃদু উপসর্গ রয়েছে, সেটিও তিনি একটি বার্তায় জানিয়েছিলেন। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী তিনি যে ঘরবন্দী জীবন কাটাবেন এ মুহূর্তে, সেটিও লিখেছেন।

তারপরেই শচীনকে ঘিরে শুভান্যুধায়ীদের পালটা শুভকামনা জানানোর তোড়জোড় শুরু হয়। কিন্তু অপ্রত্যাশিতভাবে ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়ক কেভিন পিটারসেন, যাঁকে বিশ্ব ক্রিকেট চেনে ‘কেপি’ নামে, তিনি শচীনের ওই টুইটের জবাব দিতে গিয়ে লেখেন, ‘‘আমাকে কেউ একটু বলবে, কারওর করোনা হয়েছে, এটা সারা বিশ্বকে জানানোর কি দরকার আছে?’’

শচীনের মতো একজন কিংবদন্তির বিরুদ্ধে কেউ এমন বলতে পারেন, তাও আবার তিনি একটি ভাইরাসজনিত রোগে আক্রান্ত, সেটি নিয়ে ক্রিকেটমহলে চর্চা শুরু হয়ে যায়। সবাই যখন কেপি-র এই টুইটে মৌণব্রত ছিলেন, সেইসময় যুবরাজ সিং পালটা তাঁকে লেখেন, ‘‘তোমারই বা আচমকা এরকম কেন মনে হচ্ছে? এগুলো তো আগে বলো নি?’’ যুবরাজ বোঝাতে চেয়েছেন অনেক ক্রীড়াবিদই এরকমভাবে কোভিড পজিটিভ জানিয়েছিলেন, তাঁদের ক্ষেত্রে তো কিছু লেখেননি ওই ব্রিটিশ। আচমকা শচীনের ক্ষেত্রে এমন বিতর্কিত পালটা টুইট করার কি মানে!

এরকম একটি বিতর্কের জন্ম দিয়ে পিটারসেন পালটা ফের লেখেন, ‘‘উপস, আরে আমি এখনই দেখলাম শচীন লিখেছেন, সরি শচীন, তুমি দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠো।’’

অনেকে মনে করছেন চলতি ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজকে আরও জমাটি করতেই কেপি এমন বলেছেন ভারতীয় ক্রিকেটের সেরা বিজ্ঞাপন সম্পর্কে। আবার অনেকের এও ধারণা, রায়পুরে সদ্য রোড সেফটি ক্রিকেটে শচীনের নেতৃত্বে ভারতীয় দল চ্যাম্পিয়ন হলেও গ্রুপ ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে হারে ভারত। সেই বিষয়ে খোঁচা দিতেই হয়তো দলের নেতাকে ফের ঠুকলেন এই নামী ব্রিটিশ তারকা।

আবার অনেকের ধারণা, যেহেতু কেপি প্রচারের আড়ালে চলে গিয়েছেন, প্রচারে আসতেই তিনি এমন মানসিকতা দেখিয়েছেন।

You might also like