Latest News

আগরকারকে টপকে নির্বাচকপ্রধান চেতন শর্মা, বলছেনও, ‘কাজই আমার হয়ে কথা বলবে’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: একটা সময় অজিত আগরকারের নামে অপবাদ দেওয়া হতো, তিনি নাকি শচীন তেন্ডুলকরের কোটার ক্রিকেটার। শচীন যতদিন থাকবেন, ততদিন আগরকারও থাকবেন।

অস্ট্রেলিয়া সফরে টানা ‘ডাক’ (শূন্য) করার রেকর্ড ছিল আগরকারের। তিনি ব্যাটিং করতে নামলেই পরের ব্যাটসম্যান বাউন্ডারি লাইনের ধারেই দাঁড়িয়ে থাকতেন।

আগরকারকে টপকে যিনি আবার জাতীয় নির্বাচকমন্ডলীর চেয়ারম্যান হলেন, সেই চেতন শর্মা মানেই চলে আসে শারজায় জাভেদ মিয়াঁদাদের ছক্কা হাঁকানো ও পাকিস্তানের জয়। বোলার ছিলেন চেতনই, যিনি আবার নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে হ্যাটট্রিক করেছিলেন ১৯৮৭ সালের বিশ্বকাপে।

আগরকারের থেকে তিনটি টেস্ট কম খেলেছেন চেতন। কিন্তু যেহেতু সিনিয়র, সেই কারণেই শচীনের প্রিয় পাত্রের জায়গা হল না। চেতন ছাড়াও আরও দু’জন যাঁরা নির্বাচকমন্ডলীতে এলেন তাঁরাও প্রাক্তন পেসার। একজন মুম্বইয়ের অ্যাবে কুরুভিল্লা ও অন্যজন ওড়িশার দেবাশিস মোহান্তি। দুই প্রাক্তন পেসারই সৌরভের আমলে ভারতীয় দলে ছিলেন। পাঁচ সদস্যে কমিটির বাকি দুই সদস্য হলেন স্পিনার সুনীল জোশী এবং পেসার হরবিন্দর সিং। তার মানে পাঁচজনের মধ্যে চারজনই ভারতের প্রাক্তন পেসার। তিন বিদায়ী নির্বাচক হলেন পূর্বাঞ্চলের দেবাং গান্ধী,  শরণদীপ সিং এবং যতীন পরাঞ্জপে।

আগামী ফেব্রুয়ারিতে ইংল্যান্ড সফরের জন্য দল বাছবে এই নয়া নির্বাচক কমিটি। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে তিন নির্বাচকের শূন্যপদ বেশ কিছুদিন ফাঁকা পড়েছিল। তার ফলে এতদিন নির্বাচক প্রধানের দায়িত্ব সামলাচ্ছিলেন সুনীল জোশী। তিনিও নতুন কমিটিতে থাকবেন, তবে তাঁকে টপকে প্রধান নির্বাচক হলেন চেতন। দেশের হয়ে সুনীলের থেকে বেশি টেস্ট খেলার সুবাদে এই পদ পাচ্ছেন প্রাক্তন পেসার। প্রসঙ্গত, এদের বাছাই করেছে ক্রিকেট উপদেষ্টা মন্ডলী, যার আবার চেয়ারম্যান প্রাক্তন পেসার মদনলাল।

নয়া ইনিংস শুরু করার পরে স্বভাবতই খুশি বিশ্বকাপে প্রথম হ্যাটট্রিকের নায়ক। চেতন শর্মা বলেছেন, ‘‘আরও একবার ভারতীয় ক্রিকেটের সেবা করার সুযোগ পাওয়া আমার জন্য সতিই গর্বের। আমি বেশি কথা বলা পছন্দ করি না। আমার কাজ আমার হয়ে কথা বলবে।”

চেতন ধন্যবাদ জানিয়েছেন বোর্ডকে। এও বলেছেন, ‘‘আমি আমার সেরাটা দেব এক্ষেত্রে।’’ চেতনের অধীনে নির্বাচকের দলটি দুটি টি ২০ বিশ্বকাপের দল বাছাই করবে। এমনকি ২০২৩ সালের বিশ্বকাপের দলও তৈরি করবে। গত নির্বাচকপ্রধান এমএসকে প্রসাদের কমিটি ভাল কাজ করেনি মোটেই, তাঁরা সমালোচিতও হয়েছেন প্রতিপদে।

 

 

 

You might also like