Latest News

Sourav-Jhulan: সৌরভ পারেননি, ঝুলনও পারলেন না, বিশ্বকাপ ট্রফি অধরাই থাকল বাংলার দুই কিংবদন্তির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (Sourav-Jhulan) বিশ্বকাপ খুইয়েছিলেন ২০০৩ সালে জোহানেসবার্গ ফাইনালের ম্যাচে। তাঁর সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। সেই একই আক্ষেপ থাকল ঝুলন গোস্বামীরও (Jhulan Goswami), তিনিও বিশ্বকাপ (World Cup) জিততে পারলেন না সুদীর্ঘ ক্রিকেট জীবনে।

রবিবার চোটের কারণে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ম্যাচে খেলতে পারেননি ঝুলন। পেশীর চোটের কারণে মহা ম্যাচে নামতে পারেননি। সেই হতাশা একটা ছিলই, দল জিতলে হয়তো সেই হতাশা কাটিয়ে উঠতে পারতেন। কিন্তু দল বিদায় নেওয়ায় ঝুলন ও মিতালি রাজের মতো সিনিয়রদের বিশ্বকাপ ট্রফি অধরাই থাকছে। দু’জনের কেউই বিশ্বসেরা ট্রফি জিততে পারেননি, এটাকেই হয়তো বলে কাব্যিক বিচার।

শেষ চারের স্বপ্নভঙ্গ! দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় ভারতের

১৯৯৭ সালে ইডেন গার্ডেন্সে যে বল গার্লের অভিষেক হয়েছিল, সেই চাকদহ এক্সপ্রেসের হতাশার ছবি ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। এদিন ম্যাচে সারাক্ষণ ড্রেসিংরুমে বসেছিলেন, কিছু পরামর্শও দিয়েছিলেন মিতালিকে।

দ্বিতীয় ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিংয়ের শেষের দিকে যতবার তাঁর দিকে ক্যামেরা তাক করা হচ্ছিলো, মনে হয়েছে তিনিই মাঠে নেমে দলকে বাঁচাবেন। দলের সেমিফাইনালের দৌড় শেষ হতেই হতাশায় মুখ ঢাকেন ঝুলন। দলনায়িকা মিতালিও জানান, ঝুলনের জন্য আমরা ম্যাচটি জিততে চেয়েছিলাম।

বাংলার নামী তারকার স্বপ্ন পূরণ হল না। চূড়ান্ত নাটকীয় শেষ ওভারে তিন উইকেটে ম্যাচ জিতে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। তার ফলে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যায় ভারত। কারণ সেমিফাইনালে উঠতে গেলে সেই ম্যাচ জিততেই হত ঝুলনদের। সেটা না হওয়ার পরেই হতাশায় ভেঙে পড়েন ‘চাকদহ এক্সপ্রেস’। তাঁর চোখে জলও দেখা গিয়েছে।

সৌরভ সব পেয়েছেন, বিশ্ব সেরার ট্রফি পাননি, ঝুলনও তাই। তিনি আইসিসি-র সেরা অলরাউন্ডার হয়েছেন, তাও পেলেন না বিশ্বজয়ের মুকুট।

You might also like