Latest News

কাতারের আকাশে মেঘের ঘনঘটা, বৃষ্টিও, ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা ম্যাচের দিন দুর্যোগের পূর্বাভাস

শুভ্র মুখোপাধ্যায়

কাতারে থাকার তিন সপ্তাহ বাদে আকাশে মেঘ দেখতে পেলাম। দুপুর বারোটা নাগাদ আকাশ অন্ধকার করে এসে বৃষ্টিও হল কয়েক পশলা। এমনিতে এখানকার মানুষরা বলাবলি করেন, কাতারে বছরের বেশিরভাগ সময়ই কাঠফাটা রোদ থাকে। বৃষ্টির মরশুম বলতে বোঝায় ডিসেম্বর মাসের প্রথম দুই সপ্তাহ, তার মধ্যেই ঝড়-জল যা হওয়ার হয়ে যাবে (qatar world cup 2022)। তারপর সারা বছর নিশ্চিন্ত।
এইসময় যেহেতু এখানে বিশ্বকাপ ফুটবল হচ্ছে, তাই বর্ষণের সম্ভাবনাও রয়েছে। তার মধ্যেই বুধবার এখানকার কাতার আবহাওয়া দপ্তরের থেকে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে, শুক্রবার ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার যেদিন ম্যাচ রয়েছে, সেদিন কাতারে বৃষ্টি ও ঝড় হওয়ার ভালই সম্ভাবনা রয়েছে।
এবারের বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালের (qatar world cup 2022) প্রথম ম্যাচে ব্রাজিল নামবে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে। একই সময়ে আর্জেন্টিনা খেলবে নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে। দুটি ম্যাচই শুক্রবার। এদিন আবহাওয়া দপ্তর থেকে একটি ইমেল করে ফিফা অ্যাক্রিডিটেড সাংবাদিকদের জানানো হয়েছে, সেদিন ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সেটি নিয়ে কাতার রেডিও খবর ঘোষণাও করেছে।
এও বলা হয়েছে, ৭-১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত দূর্যোগের আশঙ্কা রয়েছে। সেদিনও উবের চালক বাংলাদেশের রশিদ বলছিলেন, কাতারে খুব যে জোরে বৃষ্টি হয় তা নয়। বরং তিন-চারদিন টানাও হয় না। বিক্ষিপ্তভাবে ভালই বৃষ্টি হয় এই অল্প সময়ে। তারপর বছরে আর বৃষ্টি-বাদলের সম্ভাবনা নেই।
শুধু ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা ম্যাচ নয়, বরং মরক্কো-পর্তুগাল এবং ইংল্যান্ড-ফ্রান্সের মধ্যে শেষ আটের লড়াইয়ের দিনও বৃষ্টি হতে পারে।
আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, কাতারে ৭-১০ ডিসেম্বরের মধ্যে হাওয়া দক্ষিণ-পূর্ব থেকে উত্তর-পূর্ব দিকে ১১ থেকে ২৯ কিলোমিটার বেগে প্রবাহিত হবে। এমনকি কখনও বা দমকা হাওয়া ৪৬ কিমি গতিবেগও ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

বিশ্বকাপ হ্যাটট্রিক হিস্ট্রি: পেলে থেকে র‍্যামোস, ৯২ বছর এক নজরে

তাপমাত্রা এখানে অনেকটা কমে যায় রাত আটটার পর থেকে, সেটি থাকে ভোর পর্যন্ত। রাতের দিকে হিমেল হাওয়াও বইছে। রাতের দিকে হাফহাতা সোয়েটারও লাগছে। সেইসময় আর ঘরে এসি চালাতে হচ্ছে না।
আল খোর কিংবা সিমাইসমার মতো দোহার উপকূল অঞ্চলগুলি একেবারে ফাঁকা শুনশান হওয়ায় আরও ঠান্ডা লাগে। এইসময় কাতারের দিনের তাপমাত্রা ২৬ ডিগ্রি ও রাতের দিকে সেটাই হয়ে দাঁড়াচ্ছে ১৫-১৬ ডিগ্রি।
ঝড়-বৃষ্টি হলেও কাতারের স্টেডিয়ামগুলোতে অত্যাধুনিক ব্যবস্থার কারণে খেলা বন্ধ হওয়ার তেমন কোনও আশঙ্কা নেই। তবে স্টেডিয়ামের বাইরে থাকা দর্শকরা সমস্যায় পড়বেন। তারপর এখানে মাঠের পাশে কোনও ছাউনিও নেই। যার ফলে বৃষ্টি হলে মানুষ খোলা আকাশের নিচে ভিজবেন।
প্রথম মুসলিম দেশ হিসেবে কাতার বিশ্বকাপের ২২তম আসর সাফল্যের সঙ্গে সংঘটন করছে। ফিফা জানিয়েছে, এবার গ্রুপ পর্বের ৪৮টি ম্যাচ স্টেডিয়ামে বসে উপভোগ করেছেন ২৪ লাখের বেশি দর্শক। রাশিয়ার থেকেও সংখ্যাটি বেশি।
সবচেয়ে বেশি দর্শক হয়েছে আর্জেন্টিনা-মেক্সিকোর ম্যাচের দিন। সেদিন স্টেডিয়ামে দর্শক সংখ্যা ছিল অন্তত ৮৮ হাজার ৯৯৬ জন। এছাড়া দোহার ফ্যান ফেস্টিভ্যালে দর্শক ছিল ১০ লাখের বেশি। ফ্যান ফেস্টিভ্যাল এমন একটি স্পট যেখানে বসে ফ্যানটা টুর্নামেন্ট চলাকালীন খেলা সরাসরি উপভোগ করতে পারেন। ২০০৬ সালে জার্মানি বিশ্বকাপ থেকে এই ফ্যান পার্কের বিষয়টি ফিফার প্রথম মাথায় আসে।

You might also like