Latest News

এ যেন আসল বাহুবলী, কুস্তির রবি কুমারকে দেখে তাজ্জব বনে যেতে হয়

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সেলুলয়েডে প্রভাস হয়েছিলেন বাহুবলী, তাঁর ফিজিক দেখে মোহিত হয়েছিলেন সকলে। পাহাড়প্রমাণ ওজনের যে কোনও জিনিসকে তুলে ফেলতে পারতেন অনায়াসে। সেই প্রভাসকে মনে করালেন অলিম্পিকে পদকজয়ী কুস্তিগির রবি কুমার দাহিয়া।

টোকিও অলিম্পিকে যাওয়ার আগে রবি কুমার শিবমন্দিরে গিয়ে মানত করেছিলেন, পদক নিয়ে ফিরলে তিনি শিবলিঙ্গে জলাভিষেক করবেন। টোকিওতে কুস্তিতে রুপো জয়ের পরে রবি সেটি পালন করতে খালি গায়ে জল নিয়ে শিবলিঙ্গে জল দিয়েছেন।

ঘাড়ের উপর কলসি নিয়ে শিবমন্দিরের দিকে হেঁটে চলেছেন তিনি। এই ছবি মনে করিয়ে দিয়েছে জনপ্রিয় সিনেমা বাহুবলীর সেই দৃশ্য। কলসির জল দিয়ে মহাদেবের জলাভিষেক করতেও দেখা গিয়েছে তাঁকে। নেট দুনিয়ায় সেই ছবি বেশ জনপ্রিয় হয়েছে, অনেকে এও বলেছেন, ইনিই তো আসল বাহুবলী। আবার অনেকে লিখেছেন, ইনি প্রভাস নন, আমাদের রবি কুমার, যিনি ভারতীয় সংস্কৃতির পুরনো পরম্পরা বজায় রেখেছেন।

দেশের বাড়িতে ফিরে রবি কুমার মন্দিরে পূজো দেন এবং সেখান থেকে জম্মু কাশ্মীরের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। সেখান থেকে বৈষ্ণব দেবী মন্দির দর্শনের জন্য বেরিয়ে পরেন। সেখানে তিনি গোটা রাস্তায় তিনি বৈষ্ণব মাতার গান করতে থাকেন। অনেকেই নামী তারকার সঙ্গে ছবি তুলেছেন।

বরাবরই রবি ধার্মিক, তিনি সর্বভারতীয় কোনও কুস্তির আসরে গেলেও সেখানকার মন্দিরে গিয়ে পুজো দেন। এটাই তাঁর বরাবরের অভ্যাস। এবারও তিনি টোকিও থেকে ফিরে বিভিন্ন মন্দিরে গিয়ে পুজো দিয়েছেন। তাঁর সঙ্গে ছিলেন কোচ। রবি কুমারের অভাবনীয় সাফল্যে দিল্লি সরকার জানিয়েছে, তিনি যে ছোটবেলায় যে স্কুলে পড়তেন, সেই স্কুলের নামকরণ করা হবে তাঁর নামে।

 

 

 

You might also like