Latest News

ইস্টবেঙ্গলের বাতিল চিমাকে নিল জামশেদপুর, রয় কৃষ্ণদের গ্রাস করছে অন্য হতাশা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: লাল হলুদের বাতিল বিদেশীকে নিল জামশেদপুর। দলের যে স্ট্রাইকারের জন্য ইস্টবেঙ্গলকে বিস্তর ভুগতে হয়েছে, সেই ড্যানিয়েল চিমাকে সাদরে নিল টাটানগরের দল।

বহু স্বপ্নের মধ্যে দিয়ে আইএসএলে আগমন ঘটেছিল চিমার। তিনি সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছেন, নামের পাশে দুটি মাত্র গোল। জানুয়ারির নতুন উইন্ডো চালু হতেই চিমাকে ছেড়ে দেন লাল হলুদ কর্তারা। এই সুযোগের জন্যই যেন অপেক্ষা করছিল জামশেদপুর এফসি।

নতুন ক্লাবে সই করে ৩০ বছরের চিমা বলেন, ‘‘জামশেদপুর এফসি-র মতো ক্লাবে সই করতে পেরে আমি গর্বিত। ক্লাব আমাকে যোগ্য মনে করেছে। ক্লাব কর্তারা আমার উপর যে ভরসা দেখিয়েছেন তাতে আমি খুব খুশি। দলকে জেতাতে ও সমর্থকদের মুখে হাসি ফোটানোর সব রকমের চেষ্টা করব।’’

চিমাকে সই করিয়ে খুশি জামশেদপুরের কোচ ওয়েন কয়েল। তিনি বলেন, ‘‘চিমা খুব ভাল ফুটবলার। ইতিমধ্যেই ও নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করেছে। চিমার দিকে আমাদের নজর ছিল, তাই ওঁকে দলে নেওয়া হয়েছে।’’

এদিকে, চলতি আইএসএলে বড় সমস্যার মুখে এটিকে মোহনবাগান। তাদের দলের ফুটবলারদের মানসিক সমস্যা হচ্ছে। একদিকে করোনা সংক্রমণে আক্রান্ত, তারপর বায়োবাবলের মধ্যে থেকে হতাশা গ্রাস করছে। সেই কারণে তাঁরা মাঠে নামতে ভয় পাচ্ছেন। এটিকে মোহনবাগান ফুটবলারদের জন্য মনোবিদ নিয়োগ করা হতে পারে। কর্তারা সেটি নিয়ে ভাবছেন।

দলের নামী তারকা রক্ষণের ভরসা তিরি বলেছেন, ফুটবলারদের মধ্যে মানসিক হতাশা কাজ করছে। কঠোর বায়ো বাবলের মধ্যে থেকে ফুটবলাররা হাসফাঁস করছেন। এই সমস্যা কাটিয়ে উঠতে না পারলে আরও সমস্যা হবে, সেই প্রভাব দলের খেলায় পড়বে।

প্রসঙ্গত, এটিকে মোহনবাগানের শেষ দুটি ম্যাচ বাতিল হয়ে গিয়েছে। দলের মোট ছয় ফুটবলার করোনা সংক্রমিত। কবে তারা মাঠে নামবে, কেউ জোর দিয়ে বলতে পারছেন না। এবার আবার নতুন সমস্যার কথা বলছেন ফুটবলাররা।

 

You might also like