Latest News

IPL Betting: পাকিস্তান থেকে নিয়ন্ত্রিত হয় আইপিএল! বেটিং চক্রের হদিশ পেতে তদন্ত করছে সিবিআই

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আইপিএলে আবার বেটিংয়ের (IPL Betting) ছায়া। সুদূর পাকিস্তান থেকে পরিচালিত হয় ভারতের এই কোটিপতি লিগ। পাকিস্তানে বেটিংয়ের বীজ রয়েছে, তার হদিশ পেতে সিবিআই তদন্ত শুরু করেছে।

উত্তর ভারত ও দক্ষিণ ভারতের বেশকিছু শহর, দিল্লি, যোধপুর, জয়পুর এবং হায়দরাবাদের বেশ কিছু ব্যক্তির উপর সন্দেহ রয়েছে তাদের। মূল সন্দেহের তীর পাকিস্তানের দিকে।

দেশজুড়ে তদন্ত শুরু করে দিয়েছে সিবিআই। মনে করা হচ্ছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা দপ্তরের সহায়তায় কাজ করছে সিবিআই। তাদের কাছে খবর এসেছিল বেশ কয়েকজন মিলে বেটিংয়ের একটি চক্র তৈরি করেছিল। এই তিন বুকি জাল পরিচয়পত্র এবং কেওয়াইসি দিয়ে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টও খোলে।

East Bengal: ইস্টবেঙ্গলের স্পনসর প্রাপ্তি জুনেই, মাদ্রিদ থেকে সাপোর্ট স্টাফ আনবেন কর্তারা

তদন্তে বেরিয়ে এসেছে, যে তিন ব্যক্তিকে ধরা হয়েছে তাদের আর্থিক লেনদেনে অসঙ্গতি দেখা গিয়েছে। পাকিস্তানের এক ব্যক্তির সঙ্গে সেই তিন ব্যক্তি যোগাযোগ রাখত বলে জানা গিয়েছে। এমনকি প্রতি ম্যাচের সময় তাদের মধ্যে যোগাযোগ বাড়ে।

কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার এক আধিকারিক জানিয়েছেন, আইপিএলে বেটিং চক্র সেই ২০১৩ সাল থেকেই কাজ করছে। আইপিএলের অনুরাগী এবং সাধারণ মানুষদের আইপিএলের বিভিন্ন ম্যাচে টাকা দিতে তারা প্রভাবিত করে থাকে।

এক ব্যক্তির উপর সন্দেহ রয়েছে, যিনি সারা ভারত জুড়ে জুয়া খেলতেন বলে মনে করা হচ্ছে। শুক্রবার সিবিআই দু’টি মামলা করেছে। তার মধ্যে রয়েছে অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র, প্রতারণা, ভারতীয় দণ্ডবিধি জালিয়াতি এবং দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন।

সিবিআইয়ের তরফে বলা হয়েছে, “বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গিয়েছে বেশ কিছু লোক মিলে একটি জুয়া চক্র চালাচ্ছে অনেকদিন ধরেই। আইপিএল সংক্রান্ত সেই জুয়াতে পাকিস্তান থেকে লেনদেনের কিছু তথ্য পাওয়া গিয়েছে। এই জুয়ায় সাধারণ মানুষকেও জড়িয়ে ফেলছে ওই চক্র। বিভিন্ন কোম্পানি এই বেটিংকে ইন্ধন দিচ্ছে বলে গোয়েন্দা দপ্তরের অনুমান।

প্রাথমিক তদন্তে এই ব্যক্তির ফোন নম্বর পেয়েছে সিবিআই। এফআইআরে নাম রয়েছে দিলীপ কুমার, গুরাম সতীশ এবং গুরাম বাসুর। এদের নামে আগেও অভিযোগ পাওয়া গিয়েছিল। তারাই আবার জাল বিস্তার করে এই লিগে প্রভাব ফেলছে।

You might also like