Latest News

ইস্টবেঙ্গলে বিশ্বকাপার, স্পনসর নেই মোহনবাগানে, তাঁবুর বাইরে বিক্ষোভ সমর্থকদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অশান্তি যেন পিছু ছাড়ছে না মোহনবাগান ক্লাবের! কর্তাদের হাতাহাতির প্রতিবাদ আর ক্লাবের অচলাবস্থার বিরুদ্ধে ক্লাব তাঁবুর বাইরেই বিক্ষোভ দেখালেন কয়েকশো মোহনবাগান সমর্থক।

কয়েক সপ্তাহ আগেই ক্লাব কর্তাদের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে উত্তপ্ত হয়েছিল বার্ষিক সাধারণ সভা। টুটু-অঞ্জন যুযুধান দুই গোষ্ঠীর লোকজন জড়িয়ে পড়েন হাতাহাতিতেও। এ বার সমর্থক বিক্ষোভ।

বাগান সমর্থকরা স্লোগান দিলেন, ‘উই ওয়ান্ট কর্পোরেট। উই ওয়ান্ট স্পনসর।’ সেই সঙ্গে মেরিনার্সদের হাতে থাকা ব্যানারে নানান স্লোগানের মধ্যে একটি, ‘মোহনবাগান ক্লাবকে রেহাই দাও, পরিবারতন্ত্র দূর হঠাও।’

২০১৭ সালের ৮ জুলাই যুবভারতীর ৩ নম্বর গেট থেকে একসঙ্গে মিছিল করেছিলেন লাল-হলুদ এবং সবুজ-মেরুন সমর্থকরা। সেই মিছিলের মূল টার্গেট ছিল আইএসএল। দুই প্রধানের সমর্থকদেরই দাবি ছিল ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগানকে বাদ দিয়ে এই টুর্নামেন্ট করা যাবে না। এবং ফেডারেশনকে আই লিগ করলতে হবে। বাছা বাছা শব্দ দিয়ে তুলে প্রধানের সমর্থকরা স্লোগানের তির ছুঁড়েছিলেন নীতা আম্বানি, বাইচুং ভুটিয়া, প্রফুল্ল প্যাটেল, কুশল দাসদের দিকে। তারপর কেটে গিয়েছে একটা বছর। গঙ্গা দিয়ে বয়ে গিয়েছে অনেক জল। আর গঙ্গাপারের দুই ক্লাবেও চলেছে জোয়ার-ভাঁটা।

নতুন কোনও স্পনসর পায়নি মোহনবাগান। ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে ইউবি গ্রুপের দীর্ঘ ২০ বছরের সম্পর্কেও ইতি পড়েছে। এরই মধ্যে লাল-হলুদ খুঁজে পেয়েছে আলোর পথ। কোয়েস-এর সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছে আশিয়ানজয়ী ক্লাব। কোস্টারিকার বিশ্বকাপারকে সই করানোর পাশাপাশি কথা চালাচ্ছে আরও দিকপাল খেলোয়াড়দের সঙ্গে। শোনা যাচ্ছে আইএসএল খেলার জন্য দরপত্রও তুলবে লেসলি ক্লডিয়াস সরণির ক্লাবটি। ফুটবল মহলের মতে, এতেই মোহনবাহান সমর্থকদের মনে যে আগুন জ্বলছিল তাতে আরও ঘি পড়েছে।

ইতিমধ্যেই বাগানের ঘরোয়া লিগের প্রস্তুতি চলছে। কয়েকদিন বাদেই শুরু হবে কলকাতা লিগ। কিন্তু তারপর? কী করবে জাতীয় ক্লাব? কোথায় স্পনসর? ক্লাব কর্তাদের নিস্ক্রিয়তাই সমর্থকদের রাস্তায় নামালো বলে মনে করছেন অনেকে। হাওড়া শিবপুরের এক মোহনবাগান সমর্থক বলেন, এরপর কর্তাদের ঘেরাও করার কর্মসূচি নেওয়া হবে। আমরা চাই ওঁরা (পড়ুন ক্লাব কর্তারা) আমাদের প্রাণের চেয়ে প্রিয় ক্লাবকে মুক্তি দিক।’

You might also like