Latest News

১২ ম্যাচের মাথায় প্রথম জয় ইস্টবেঙ্গলের, কোচ মারিও রিভেরার হাত ধরেই শাপমুক্তি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ম্যানুয়েল দিয়াজ পারেননি, রেনেডি সিংও নন। অবশেষে ইস্টবেঙ্গল জয় পেল স্প্যানিশ কোচ মারিও রিভেরার হাত ধরে। এফসি গোয়াকে ২-১ গোলে হারিয়েই চলতি আইএসএলের প্রথম জয় পেল লাল হলুদ দল। চলতি লিগে বারো ম্যাচের মাথায় জয় পেল ইস্টবেঙ্গল। সব মিলিয়ে ১৫ ম্যাচ পরে জয়ের হাসি।

খেলার প্রথমার্ধে ২-১ গোলে এগিয়ে ছিলেন লাল হলুদ জার্সিধারীরা। দুটি গোলই করেছেন নাওরেম মহেশ। একটি খেলার ৯ মিনিটে, অন্যটি তিনি করেছেন বিরতির কিছু আগে, ৪২ মিনিট আগে। দুটি গোলই অনবদ্যভাবে শেষ করেছেন এই পাহাড়ী ফুটবলার।

নতুন কোচ মারিও রিভেরার প্রশিক্ষণে এদিনই প্রথম খেলতে নামে দল। করোনার জন্য প্রস্তুতিতে সমস্যা থাকলেও দলের খেলায় সৃজনশীলতা দেখা গিয়েছে। স্প্যানিশ কোচ দলকে সাজিয়েছিলেন ৪-৩-৩ ছকে।

এই জয়ের ফলে ইস্টবেঙ্গল তালিকায় শেষ স্থান থেকে এক ধাপ উঠে এসেছে। তাদের ১২ ম্যাচে পয়েন্ট নয়। অবশেষে জয় পেল দল। এর আগে দেখা গিয়েছিল, বিরতিতে এগিয়ে গিয়েও দল পারেনি শেষ রক্ষা করতে। নয় ড্র করেছে, নয় হেরেছে। এদিন কোচ রিভেরার হাত ধরে দলের ফুটবলাররা অতীত থেকে শিক্ষা নিয়ে দলকে জয়ের পথ দেখিয়েছেন।

প্রথম সাক্ষাতে এই এফসি গোয়ার কাছে ৪-৩ হারতে হয়েছিল ইস্টবেঙ্গলকে। সেইসময় দলের কোচ ছিলেন দিয়াজের হাতে। তারপর রিয়াল যুব দলের কোচকে সরতে হয় ব্যর্থতার দায়ভার নিয়ে। কোচ রেনেডি সিং জয় এনে দিতে না পারলেও দলের শরীরী ভাষা অনেকটাই বদলে দিতে পেরেছিলেন। নতুন কোচ মারিও রিভেরা ভারতে নতুন নন। লাল-হলুদের প্রাক্তন কোচ তিনি। সেই মারিওর আজই ছিল প্রথম ম্যাচ। তাঁর কোচিংয়ে এল শেষ হাসি।

এদিন ইস্টবেঙ্গলকে প্রথমে এগিয়ে দেন মহেশ। খেলার বয়স তখন ৯ মিনিট। গোলটা অবশ্য গোয়ার ফুটবলারদের ভুল বোঝাবুঝিতে হয়। মাঝমাঠ থেকে নোগুয়েরা ভুল পাস করেছিলেন। এডু বেদিয়ার উদ্দেশে বাড়ানো সেই বল ধরে মহেশ গোল করেন। গোলের মুখ ছোট করে বেরিয়ে এসেছিলেন গোলকিপার ধীরাজ সিং। বরফশীতল মাথা দিয়ে আসল কাজ সারেন মহেশ।

ম্যাচের ৩৭ মিনিটে গোয়া দলের পক্ষে সমতা ফেরান নগুয়েরা, তিনি সতীর্থ অর্টিচের পাস ধরে গোল করে যান। যদিও ৪২ মিনিটেই লাল হলুদের পক্ষে নিজের দ্বিতীয় গোল করে মহেশ এই ম্যাচের সেরা হয়েছেন। গোয়ার রক্ষণের ভুলে বল পেয়ে গেলে দুরন্ত শটে পোস্টে লেগে বল প্রবেশ করে যায়।

You might also like