Latest News

বেদী থেকে শামি, কপিল থেকে ঈশান্ত, ২০০ উইকেটের ক্লাবে মাত্র ১১জন বোলার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পরিসংখ্যানে চোখ রাখলে দেখা যাবে, ভারত থেকে মোট ৩০০-র বেশি ক্রিকেটার টেস্টে খেলেছেন। তার মধ্যে মাত্র ১১ জন বোলার টেস্টে ২০০ উইকেটে মালিক।

এই তালিকায় বিষেন সিং বেদী থেকে ভাগবৎ চন্দ্রশেখর, কপিলদেব থেকে জাভাগল শ্রীনাথরা রয়েছেন। পাশাপাশি স্থান করে নিয়েছেন রবিন্দ্র জাদেজা। ৩০০ থেকে ৪০০ উইকেটের ক্লাবে রয়েছেন কপিল, হরভজন, অশ্বিন, জাহির খানরা।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মহম্মদ শামি ২০০টি উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন। ৩১ বছরের শামি ৫৫তম টেস্টে এই নজির গড়লেন। কপিল দেব অবশ্য ৫০তম ম্যাচে ২০০ উইকেট নেওয়ার নজির গড়েছিলেন।

শামি এমন রেকর্ড গড়তেই তাঁকে নিয়ে মজার টুইট করেছিলেন সদ্য বিদায়ী কোচ রবি শাস্ত্রী। তিনি লিখেছিলেন, শামিকে কেউ বিরিয়ানি দাও। এটা ওর প্রাপ্য।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর বিশ্রাম নিয়েছিলেন শামি। ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজেও তাঁকে খেলতে দেখা যায়নি। তবে ফের একবার লাল বল হাতে নিয়েই ভয়ঙ্কর হয়ে দেখিয়েছেন।

২০০ উইকেট নিয়ে ক্রিকেট দুনিয়ার নবম বোলার হিসেবেও নজির গড়লেন শামি। তবে ভারতীয়দের মধ্যে তাঁর আগে রয়েছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। তিনি ৩৭টি টেস্টে সবচেয়ে দ্রুত ২০০ উইকেট নিয়েছিলেন। এই তালিকার শীর্ষে রয়েছেন পাকিস্তানের লেগ স্পিনার ইয়াশির শাহ। তিনি মাত্র ৩৩টি টেস্টে ২০০ উইকেট নিয়েছেন।

২০১৩ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠ ইডেন গার্ডেন্সে টেস্ট অভিষেক ঘটান শামি। তারপর চোটে মাঠের বাইরে থাকলেও ফের লড়াই করে দলে ফিরেছেন।

 

২০০ উইকেট নেওয়া ভারতীয় বোলার

কপিল দেব: ৪৩৪ উইকেট ২২৭ ইনিংসে; জাহির খান: ৩১১ উইকেট ১৬৫ ইনিংসে; ঈশান্ত শর্মা: ৩১১ উইকেট ১৮৫ ইনিংসে; জাভাগল শ্রীনাথ: ২৩৬ উইকেট ১২১ ইনিংসে; মহম্মদ শামি: ২০০ উইকেট ১০৩ ইনিংস; বিষেন সিং বেদী: ৬৭টি ম্যাচে ২৬৬ উইকেট; ভাগবৎ চন্দ্রশেখর: ৫৮টি ম্যাচে ২৪২ উইকেট; হরভজন সিং: ১০৩টি ম্যাচে ৪১৭ উইকেট; অনিল কুম্বলে: ১৩২টি ম্যাচে ৬১৯ উইকেট;  রবিচন্দ্রন অশ্বিন: ৮২টি ম্যাচে ৪২৭ উইকেট; রবিন্দ্র জাদেজা: ৫৭টি ম্যাচে ২৩২ উইকেট।

 

You might also like