দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডে ডামাডোল, গণ পদত্যাগ প্রেসিডেন্টসহ বাকি কর্তাদের

৪৭৪

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

 

দ্য ওয়াল ব্যুরো : বিশ্ব ক্রিকেটে নজিরবিহীন ঘটনা। একসঙ্গে সকল ক্রিকেট কর্তা পদত্যাগ করলেন দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ড থেকে। তার মধ্যে রয়েছেন প্রেসিডেন্টসহ বাকি পদাধিকারীরাও। রবিবার রাতে পদত্যাগ করেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের ছয়জন পরিচালক। আজ সোমবার সকালে একসঙ্গে পদত্যাগ করেছেন বোর্ডের বাকি থাকা ১০ সদস্য।

গতকাল পদত্যাগ করেছিলেন ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট বেরেসফোর্ড উইলিয়ামস, এমনকি বাকি সব গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকা কর্তারাও। তাদের পর আজ সকালে পদত্যাগ করলেন পরিচালক জোলা থামাই এবং তিন জন ভাইস প্রেসিডেন্ট ইউগেনিয়া কুমা আমেয়াও, মরিস স্কোম্যান এবং ভুয়োকাজি মেমানি সেডিল। টুইটারে এক বিবৃতির মাধ্যমে এ খবর জানিয়েছে ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা (সিএসএ)।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘‘সদস্যের কাউন্সিল হওয়ার পর সবার আলোচনায় উঠে এসেছিল যে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটের ভালোর জন্য পুরো বোর্ডেরই পদত্যাগ করা উচিত। আজ সকালে সেটিই করেছে তারা। কমিটিতে থাকা সব কর্তাই দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন।’’

গত কয়েকবছর থেকেই দেশের সরকার নিয়ন্ত্রন করছিল দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডকে। এটি ভালমতন নেয়নি সেই দেশের অলিম্পিক কমিটি। তারা এই বিষয়টির নিস্পত্তি চাইছিল। যদিও আইসিসি এই ব্যাপারে কোনও হস্তক্ষেপ করেনি। তারা জানিয়ে দিয়েছে, এটি অভ্যন্তরীন সমস্যা, এখানে আমাদের কিছু করণীয় নেই।

দক্ষিণ আফ্রিকার স্পোর্টস ফেডারেশন এবং অলিম্পিক কমিটির নির্দেশনা অনুযায়ী ক্রিকেট বোর্ডের জন্য অন্তর্বর্তীকালীন একটি পরিচালন কমিটি ঠিক করতে বলা হয়েছিল। তবে মেম্বারস কাউন্সিলের পরামর্শ থাকার পরেও তখনকার কমিটি ভাঙতে রাজি হয়নি ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা।

যে কারণে পুরো বিষয়টিকে দেশের ক্রীড়ামন্ত্রী নাথি থেতওয়ার কাছে হস্তান্তর করে দেয় অলিম্পিক কমিটি। পরে ক্রীড়ামন্ত্রী ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকাকে ‘ন্যাশনাল স্পোর্টস এন্ড রিক্রিয়েশন অ্যাক্ট’ অমান্য করার যথাযথ কারণ দেখানোর জন্য মঙ্গলবার পর্যন্ত সময় বেঁধে দেয়।

থেতওয়া আইসিসিতেও নোটিশ পাঠিয়ে রেখেছিলেন যে তিনি সাম্প্রতিক সময়ের সমস্যা কাটাতে যথাযথ পদক্ষেপ নেবেন। যার ফলে এখন সরকারের হস্তক্ষেপমুক্ত হয়ে অলিম্পিক কমিটির সঙ্গে মিলে নতুন সাংগঠনিক কাঠামো দাঁড় করাতে পারবে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ড।

তবে এক্ষেত্রে আবার আছে ক্রীড়ামন্ত্রীর কড়া নির্দেশ। মঙ্গলবারের মধ্যে তাঁকে অন্তর্বর্তীকালীণ কমিটি গঠনের মাধ্যমে ভবিষ্যত পরিকল্পনার ব্যাপারে জানাতে হবে। এই কমিটিতে অন্তত একজন প্রাক্তন নামী ক্রিকেটারকে রাখার বাধ্যবাধকতাও দিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেইসময় ঠিক হবে পদত্যাগ করা পদাধিকারীরা ফের দায়িত্বে আসতে পারবেন কিনা।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More