মঙ্গলবার, নভেম্বর ১২

বোর্ড সভাপতির পরে কি বিজেপিতে সৌরভ? উত্তরে ছক্কা হাঁকালেন দাদা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এখন শুধু আনুষ্ঠানিক ঘোষণার অপেক্ষা। তাঁর কোনও প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় বিসিসিআই সভাপতি পদ তাঁর জন্য নিশ্চিত। সোমবারই তিনি মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

এদিন তিনি জানিয়েছেন, ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারদের দিকে শুরুতেই নজর দিতে চান সৌরভ। রবিবার রাতে বিসিসিআই-এর রাজ্য সংস্থাগুলোর বেসরকারি বৈঠকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে তাঁর নামে সিলমোহর পড়ে। সৌরভ বলেছেন, “কিছু করার জন্য দারুণ সুযোগ পেয়েছি। এটা মস্ত বড় দায়িত্ব। কারণ, বিসিসিআই বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় সংস্থা। ভারত হল ক্রিকেটের পাওয়ারহাউস। এই দায়িত্ব তাই রীতিমতো চ্যালেঞ্জিং।”

এরই মধ্যে শুরু হয়েছে নতুন জল্পনা। তিনি নাকি বিজেপির হয়ে ভোট প্রচারের ব্যাপারে সম্মতি দিয়ে এই পদে বিনা প্রতিদ্বন্ধীতায় জয় পেয়েছেন। সৌরভকে নিয়ে রাজনৈতিক জল্পনা অবশ্য নতুন নয়। অতীতেও তিনি বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন বলে খবর রটেছে। আর প্রতিবারই নিজের স্বাভাবোচিত ঢঙে সেই প্রশ্নকে মাঠের বাইরে পাঠিয়েছেন সৌরভ। এবারেও তার অন্যথা হল না।

২০২১ সালের নির্বাচনে বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিজেপির প্রচারে তাঁকেই কি তুলে ধরতে চাইছেন অমিত শাহ? সৌরভ এর উত্তরে বলেন, “একেবারেই এমন কিছু নয়। কেউই এই ব্যাপারে আমাকে কিছু বলেনি।”

এদিন বোর্ড প্রেসিডন্ট হওয়ার সঙ্গে জাতীয় দলের অধিনায়ক হওয়াকেও তুলনা করতে চাননি সৌরভ। সংবাদসংস্থা পিটিআকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “দেশের অধিনায়ক হওয়ার ব্যাপারই আলাদা। সেটার সঙ্গে কোনও কিছুর তুলনা হয় না। তবে আমি কখনও ভাবিনি বোর্ড প্রেসিডেন্ট হতে পারব।”

আরও পড়ুন

হয়তো সেই ছোট্ট গ্রামে দেখেছি বাঞ্ছারামকে: মনোজ মিত্র

Comments are closed.