শনিবার, মার্চ ২৩

বিপদে পড়ে গাড়ির টায়ার চুরি করেছিলেন তিনি! নিজেই স্বীকার করলেন প্রকাশ্যে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এক সময় গাড়ির টায়ার চুরি করেছিলেন তিনি! শুধু তা-ই নয়, চুরির পরে মালিকের উদ্দেশে চিঠি লিখে ধন্যবাদও জানিয়ে এসেছিলেন। খ্যাতির শীর্ষে থাকা অবস্থায় এই কথা স্বীকার করে সকলকে হতবাক করে দিয়েছেন বলিউডের বাদশা শাহরুখ খান! জ়িরো ছবির প্রচারে একটি অনুষ্ঠানে এসে, সকলকে চমকে দিয়ে এই অপ্রত্যাশিত বিষয়টি জানান তিনি!

কেরিয়ার শুরুর গোড়ায় তিনি যে অনেক স্ট্রাগেল করেছেন, সে কথা বারবার সামনে এসেছে তাঁর বিভিন্ন সাক্ষাৎকারে এবং লেখালেখিতে। তাই বলে টায়ার চুরি! না, এটা জানতেন না শাহরুখের বেশির ভাগ ভক্তই। তবে সবটা জানার পরেও তাঁরা মোটেও ‘চোর’ বলে মানতে রাজি নন তাঁদের সুপারস্টারকে। কারণ তাঁদের যুক্তি, কারও কোনও জিনিস নিয়ে যদি চিঠি লিখে ধন্যবাদ জানিয়ে আসা হয়, তা হলে আর সেটা চুরি থাকে কি?

একটি রেডিও চ্যানেলে জ়িরো সিনেমার প্রচারে এসেছিলেন শাহরুখ। সিনেমাটি খুব হই হই করে রিলিজ় করলেও, একেবারেই ভাল ব্যবসা করতে পারছে না বক্স অফিসে। শাহরুখের চরিত্র, বামন বাউআ-কে মোটেই সাদরে গ্রহণ করেননি ভক্তকূল। আরও বেশি করে বর্জন করেছেন সিনেমার গল্পটিকে।

সেই জ়িরোর প্রচারে এসে কথায় কথায় শাহরুখ বলেন, “এক দিন আমার গাড়ির টায়ার পাংচার হয়ে গিয়েছিল। তবে কোথায় হয়েছিল সেটা বলব না, কারণ এটা বললে এখনও ধরা পড়ে যেতে পারি! আমি যখন চাকা ঠিক করছিলাম, তখন দেখলাম শুধু ওই চাকাটা নয়, আরও একটা চাকা বসে গেছে একই সঙ্গে। তখনই দেখি সেখানে অন্য একটা গাড়ি পার্ক করা আছে। আমার যে গাড়ি, সেই একই গাড়ি ছিল ওটা। তো আমি চুপচাপ আমার গাড়ির একটা খারাপ টায়ার সেই গাড়িতে লাগিয়ে, সেই গাড়ির একটা ভাল টায়ার নিজের গাড়িতে লাগিয়ে নিয়েছিলাম।”– স্বভাবসুলভ হাসির মোড়কে এ কথা জানান শাহ্রুখ।

এখানেই শেষ নয়। এর পরে একটি ধন্যবাদ-নোটও লেখেন তিনি। সেটা রেখে আসেন ওই গাড়িতে। এ কথা জানিয়ে তিনি আরও বলেন, “আমি কিন্তু সব সময় এমন করি না! এক বারই করছিলাম বাধ্য হয়ে।”

Shares

Comments are closed.