বুধবার, নভেম্বর ২০
TheWall
TheWall

মহারাষ্ট্রে বিধায়কদের পাঁচতারা হোটেলে লুকিয়ে রাখার ব্যবস্থা করছে শিবসেনা

দ্য ওয়াল ব্যুরো : মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের সময়সীমা শেষ হয়ে আসছে। এখনও অনড় দুই জোটশরিক শিবসেনা ও বিজেপি। একটি সূত্রের খবর, শিবসেনা নেতারা আশঙ্কা করছেন, শেষ মুহূর্তে বিজেপি তাঁদের কয়েকজন বিধায়ককে ভাঙিয়ে নিতে পারে। সেজন্য বান্দ্রা-কুরলা অঞ্চলে একটি পাঁচতারা হোটেলে তাঁদের সরিয়ে রাখার ব্যবস্থা হচ্ছে। যদিও প্রকাশ্যে শিবসেনা বিধায়ক সঞ্জয় রাউত বলেছেন, “মহারাষ্ট্রে কোনও দল ভাঙবে না। আমাদের বিধায়করা দলের প্রতি অনুগত। যাঁরা আমাদের বিধায়কদের নিয়ে গুজব রটাচ্ছেন, তাঁরা যেন নিজেদের বিধায়কদের সামলে রাখেন।”

এর মধ্যে জানা যায়, মাতুশ্রীতে শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরের বাড়িতে দুপুরে বৈঠক শুরু হয়েছে। সেখানে উদ্ধব সিদ্ধান্ত নেবেন, বিধায়কদের হোটেলে রাখা হবে কিনা। যদিও সঞ্জয় রাউত সেকথা উড়িয়ে দিয়ে বলেছেন, উদ্ধবজি বিধায়কদের সঙ্গে শিবসেনার পলিসি নিয়ে আলোচনা করবেন।

বিজেপি সূত্রে খবর, এদিন সন্ধ্যায় রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারির সঙ্গে দেখা করবেন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ। শুক্রবারের মধ্যে সরকার গঠিত না হলে মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতির শাসন জারি হবে। মঙ্গলবার ফড়নবিশের ঘনিষ্ঠ বিজেপি নেতা সুধীর মুনগানতিয়ার বলেন, “একটা সুখবর আছে। যাই ঘটুক না কেন, বিজেপি-সেনা জোটই সরকার গড়তে চলেছে।” অন্যদিকে সঞ্জয় রাউত বলেন, “মুনগানতিয়ার আমাদেরও একটা সুখবর দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, শিবসেনা থেকে কেউ মুখ্যমন্ত্রী হবেন।”

শিবসেনার দাবি, তাঁদের পক্ষে ১৭০ জন বিধায়কের সমর্থন আছে। শিবসেনা একা এবার আসন পেয়েছে ৫৬ টি। আর কোন দলের বিধায়করা তাঁদের সমর্থন করবেন সেকথা সঞ্জয় রাউত জানাননি। তাঁরা এনসিপি ও কংগ্রেসের সমর্থন পাওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু দুই দলই তাঁদের নিরাশ করেছে।

Comments are closed.