শনিবার, সেপ্টেম্বর ২১

তুতিকোরিনের কারখানা নিয়ে কড়া সুপ্রিম কোর্টও

দ্য ওয়াল ব্যুরো : রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস ! গতকাল তুতিকোরিনে পুলিশের গুলিতে ১১ জনের মৃত্যুর পর এমনই টুইট করেছেন কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধী। তামিলনাড়ুর প্রধান বিরোধী দল ডিএমকে এই ঘটনাকে তুলনা করেছে জালিয়ানওয়ালাবাগের সঙ্গে। অন্যদিকে সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছে, তুতিকোরিনে অভিযুক্ত স্টারলাইট এখনই দ্বিতীয় কারখানা নির্মাণ করতে পারবে না। সব মিলিয়ে গুলিচালনার ঘটনা নিয়ে রীতিমতো হইচই শুরু হয়েছে দেশ জুড়ে।
তুতিকোরিনের মানুষ সেই ২০১৩ সাল থেকে দাবি জানাচ্ছিল, স্টারলাইট কারখানা বন্ধ করে দেওয়া হোক। কারণ ওই কারখানা দূষণ ছড়ায়। সম্প্রতি জানা যায়, ওই কোম্পানি দ্বিতীয় একটি কারখানা খুলতে চলেছে। তাতেই ক্ষেপে যায় মানুষ। বিক্ষভ দেখতে জড়ো হয় ২০ হাজার লোক। পুলিশ সেই সমাবেশে গুলি চালায়।
তারপরে রাহুল টুইটে বলেছেন, অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গিয়ে ন ‘জন নিহত হলেন। এই হল রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের নমুনা। যাঁরা হতাহত হয়েছেন, তাঁদের পরিবারের জন্য প্রার্থনা করি।
ডিএমকে নেতা এম কে স্ট্যালিন জানতে চেয়েছেন, বিক্ষোভকারীদের ওপরে গুলি চালানোর হুকুম দিয়েছিল কে ?
সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছে, আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্টারলাইট নতুন কারখানা বানাতে পারবে না। যদি ওই সময়ের মধ্যে পরিবেশ সংক্রান্ত ছাড়পত্র নিতে পারে, তবে দ্বিতীয় কারখানা নির্মাণ শুরু করতে পারবে।

Leave A Reply