মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৮
TheWall
TheWall

উই কেয়ার উই ডেয়ার, হায়দরাবাদকাণ্ডের পরে মহিলাদের সুরক্ষায় উদ্যোগ কলকাতা পুলিশের

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো : হায়দরাবাদে তরুণী পশুচিকিৎসককে ধর্ষণ ও নৃশংস খুনের ঘটনায় উত্তাল সারা দেশ। গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে কালীঘাটেও। এরপরে মহিলাদের সুরক্ষায় পুলিশি ব্যবস্থার কথা জানিয়ে টুইট করলেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা। তিনি মহিলাদের উদ্দেশে বলেছেন, আপনার নিরাপত্তা নিয়ে যদি কোনও সন্দেহ হয়, পুলিশকে ফোন করুন। তাঁর টুইটটি স্ক্রিন সেভার করে নেওয়ার জন্য তিনি অনুরোধ জানিয়েছেন মহিলাদের কাছে।

পুলিশ কমিশনার টুইটারে লিখেছেন, “যদি কোনও আপৎকালীন অবস্থার সৃষ্টি হয়, নিজের নিরাপত্তা নিয়ে সংশয় দেখা দেয়, সঙ্গে সঙ্গে পুলিশের টোল ফ্রি নম্বরে ফোন করুন।” পরে তিনি চারটি টোল ফ্রি নম্বর দিয়েছেন, ১০০, ১০৯০, ১০৯১, ১১২।

তেলঙ্গানার যে তরুণী নিহত হয়েছেন, তিনি আগেভাগেই বিপদের আঁচ করেছিলেন। কিন্তু পুলিশের বদলে তিনি ফোন করেন বোনকে।

হায়দরাবাদ পুলিশ জানিয়েছে, বুধবার রাত ৯টা ২০ নাগাদ পেশায় পশুচিকিৎসক ওই ২৬ বছরের তরুণীর স্কুটির চাকা পাংচার করে দিয়েছিল অভিযুক্তরা। তার পরের এক ঘণ্টার মধ্যেই তাঁকে গণধর্ষণ করে পুড়িয়ে মারে তারা। ধরা পড়ার পরে অভিযুক্তরা স্বীকার করেছে, তরুণী যাতে চিৎকার না করতে পারেন, সে জন্য তাঁর গলায় জোর করে মদ ঢেলে দিয়েছিল তারা। এমনকি তরুণীকে পোড়াতেও তাঁরই স্কুটির পেট্রোল ঢালা হয়েছিল বলেও স্বীকার করেছে তারা।

তবে নিহত তরুণীর মায়ের অভিযোগ, ঘটনার কথা জানার পরে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করতেই অনেকটা সময় নষ্ট হয়ে যায় তাঁদের। শেষমেশ যখন তদন্ত শুরু হয়, তখন অনেকটা দেরি হয়ে গেছে। যদিও পুলিশ এই অভিযোগ অস্বীকার করে দাবি করেছে, তারা অভিযোগ পাওয়ামাত্র তৎপর হয়ে তল্লাশি শুরু করে এবং দু’দিনের মধ্যেই গ্রেফতার করে ফেলে চার অভিযুক্তকেই।

Share.

Comments are closed.